ঢাকা, শুক্রবার 2 March 2018, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৩ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হজ্ব¡ নিবন্ধন শুরু চলবে ১১ মার্চ পর্যন্ত

স্টাফ রিপোর্টার : চলতি বছর যারা হজ্বে যাবেন তাদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে, চলবে ১১ মার্চ পর্যন্ত। আগামী ১৪ জুলাই বাংলাদেশ থেকে প্রথম হজ্ব ফ্লাইট সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। এ বছর পুরো টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। গত হজ্জে অনিয়মের কারণে ৪৬টির লাইসেন্স বাতিলসহ ১৩০টি এজেন্সীকে শাস্তি দিয়েছে সরকার।

ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে শাহজওয়াহের জাহান কবীর নামে একজন চিকিৎসকের হাতে হজ্ব নিবন্ধনের কাগজপত্র তুলে দিয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

১৪ জুলাই হজ্ব ফ্লাইট শুরুর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে ধর্মসচিব আনিছুর রহমান বলেন, এবার যাতে ফ্লাইট বিপর্যয় না হয় সে বিষয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণ করা হবে। এবার থার্ড ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করা হচ্ছে না।

হজ্বযাত্রীদের ২৮ হাজার টাকা জমা দিয়ে প্রাক-নিবন্ধন করতে হয়েছে। এখন যে যে প্যাকেজের অধীনে হজ্বে যাবেন, সেই প্যাকেজের বাকি টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এর আওতায় হজ্বে যেতে এবার ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর আওতায় ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা লাগবে।

প্রাক-নিবন্ধনের সময় জমা দেওয়া ২৮ হাজার টাকা বাদে প্যাকেজ-১ এর হজ্বযাত্রীদের ৩ লাখ ৬৯ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর যাত্রীদের ৩ লাখ ৩ হাজার ৩৫৯ টাকা সোনালী ব্যাংকের মতিঝিলের স্থানীয় কার্যালয় শাখায় ০০০২৩৩০০৯০৮ (ঝধষব ঢ়ৎড়পববফং ড়ভ ঐধলল উবঢ়ড়ংরঃ) ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অ্যাকাউন্টে জমা দিতে হবে।

যেসব ব্যক্তি ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে হজ্ব করেছেন অথবা ভিসা পেয়েও হজ্বে যাননি তাদের মধ্যে যারা এবার হজ্ব করবেন তাদের অতিরিক্ত ৪৬ হাজার ৯৩৫ টাকা ওই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। কেউ আলাদা ফ্লাইটে হজ্বে যেতে চাইলে অবশ্যই আলাদাভাবে নিবন্ধন করতে হবে।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ্বযাত্রীদের কাছ থেকে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকার কম নেয়া যাবে না জানিয়ে ধর্ম সচিব বলেন, বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার উপর নির্ভর করে এই টাকার অঙ্গে হেরফের হবে।

এবারের হজ্ব কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার জন্য ৭৭৪টি হজ্ব এজেন্সিকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে জানিয়ে আনিছুর বলেন, যারা ভালো করবে তাদের পুরস্কৃত করা ছাড়াও প্রণোদনা ও সনদ দেয়া হবে।

ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান জানান, গতবার হজ্বের সময় অনিয়মের জন্য ৬৪টি হজ্ব এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করে জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ১৭টি লাইসেন্স স্থগিত করে জরিমানা এবং ৪৯টি এজেন্সিকে জরিমানার পাশাপাশি তিরস্কার করা হয়েছে।

এর বাইরে ১২টি এজেন্সিকে সতর্ক এবং ৫১টিকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

সৌদি আরবের সঙ্গে হজ্ব চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে এবার এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ্ব করতে পারবেন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় সাত হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার জন।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ অগাস্ট হজ্ব হতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ