ঢাকা, শুক্রবার 2 March 2018, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৩ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় গ্রাম পুলিশের পোশাক সরবরাহের দুই কোটি টাকার কাজ যুবলীগ নেতাদের ভাগবাটোয়ারা

 

খুলনা অফিস : খুলনায় গ্রাম পুলিশের (দফাদার মহাল্লাদার)  পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি সরবরাহের প্রায় দুই কোটি টাকার কাজ ভাগবাটোয়ারা করে নিয়েছে যুবলীগের নেতারা। সিন্ডিকেটের বাঁধার কারণে সাধারণ ঠিকাদাররা দরপত্র জমা দিতে পারেনি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ছিল দরপত্র জমার শেষ দিন। এ উপলক্ষে সকাল থেকে নির্ধারিত স্থান বিভাগীয় কমিশনার ও কেসিসি কার্যালয়ে পাহারা বসায় যুবলীগের নেতাকর্মীরা। 

প্রত্যক্ষদর্শী ও একাধিক সূত্র জানিয়েছে, খুলনা মহানগর যুবলীগের নেতা রানা পারভেজ সোহেল ও কাজী তালাত হোসেন কাউট এর নেতৃত্বে তাদের অনুসারীরা এই টেন্ডারবাজীর সিন্ডিকেট করে। মহানগর আওয়ামী লীগের এক প্রভাবশালী নেতা উক্ত দরপত্রটির কাজ পাইয়ে দেবার জন্য নগর যুবলীগের ওই নেতারা এই পাহারা বসায়। এসময় সাধারণ ঠিকাদাররা দরপত্র জমা দিতে গেলে তাদের বাঁধা দেয়। এমনকি যুবলীগের একাংশ দরপত্র জমা দিতে গেলে উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তবে এরা কেউ্ই দরপত্র জমা দিতে পারেনি বলে সূত্র জানিয়েছে।

সূত্রে আরও জানা যায়, গত ৭ ফেব্রুয়ারি এই কাজের দরপত্র আহবান করা হয়। দরপত্র ক্রয়ের শেষ তারিখ ছিল ২৮ ফেব্রুয়ারি। ওইদিন সর্বমোট ১০টি সিডিউল বিক্রি হয়েছে। দরপত্র জমার শেষ দিন গতকাল বৃহস্পতিবার। খুলনা সিটি কর্পোরেশন ও বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখায় এ দরপত্র জমা দেয়ার কথা ছিল। যুবলীগ নেতাদের বাধার কারণে সাধারণ ঠিকাদাররা সিডিউল জমা দিতে পারেনি। তবে যুবলীগ নেতাদের পছন্দের ঠিকাদারদের মাত্র তিনটি সিডিউল জমা পড়ে। 

এ ব্যাপারে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখার পরিচালক হোসেন আলী খন্দকার দরপত্র বাধা দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন।

যুবলীগ নেতা কাজী তালাত হোসেন কাউট জানান, কতিপয় নেতা খুলনা যুবলীগকে ব্যবহার করে এই দরপত্র নিয়ন্ত্রণ করছে। এই কাজের সাথে তার কোন সম্পৃক্ততা নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ