ঢাকা, বৃহস্পতিবার 8 March 2018, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৪, ১৯ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার বাড়িতে গ্রীল কেটে ডাকাতি

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর খালিশপুর নেভী চেকপোস্ট সংলগ্ন হালদার পাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাৎ হোসেনের বাড়িতে ডাকাতি ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার ভোরে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল এ কর্মকর্তার বাড়ির জানালার গ্রীলকেটে ভিতরে প্রবেশ করে। এর আগে তারা বাড়ির সিসি ক্যামেরার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ডাকাত দলের সদস্যদের ধারালো অস্ত্রের কোপে বাড়ির মালিক গুরুতর জখম হয়েছে। পরে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে খালিশপুর থানার পুলিশ, র‌্যাব ও নগর গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। 

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ও মুক্তিযোদ্ধা শাহাদৎ হোসেনের স্ত্রী ফাতেমা বেগম জানান, ভোর সাড়ে ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে বাড়ির রান্না ঘরের গ্রীল কেটে এক ডাকাত ধারালো অস্ত্র নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় বাড়ির প্রত্যেকটি রুমে বাইরে থেকে বন্ধ করে দেয়। গৃহকর্তার ছোট মেয়ে খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা সামসুন্নাহার ও তার দুই বছরের কন্যা সন্তানের গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে আলমারির চাবি চায়। 

ডাকাতদের উপস্থিতি টের পেয়ে মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাৎ হোসেন ওই ডাকাতকে প্রতিরোধের চেষ্টা করলে তাকে ধারালো অস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় সামসুন্নাহারের রুমের ড্রয়ারে থাকা প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ভ্যানাটি ব্যাগে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। বাইরে মুখোশ পরা আরো ৪/৫ জন ডাকাত অবস্থান করছিল। তাদের প্রত্যেকের কাছে ধারালো ও আগ্নেয়াস্ত্র ছিল বলে জানান ফাতেমা বেগম। 

তিনি আরও জানান বাড়ির লোকজন ভিতরে থাকা ওই ডাকাতকে আটকের চেষ্টা করলে অন্যান্য ডাকাতরা গুলীর ভয় দেখিয়ে তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে খালিশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সরদার মোশারেফ হোসেন বলেন, সিসি ক্যামেরার সংযোগ বিছিন্ন করার আগে যতটুকু ভিডিও ফুটেজ ধারণ হয়েছিল, আমরা সেই ফুটেজ দেখে দুর্বৃত্তদের সনাক্তের চেষ্টা করছি। এ দস্যুতার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ