ঢাকা, শুক্রবার 22 June 2018, ৮ আষাঢ় ১৪২৫, ৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সরকার পরিকল্পিত ভাবে দেশে বাকশালী রাজত্ব কায়েম করছে- এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিন

সংগ্রাম অনলাইন : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর, সাবেক এমপি জননেতা অধ্যাপক মুজিবুর রহমান সহ ১০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও অবিলম্বে তাদের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টায় কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে রাজধানীতে এক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ। মিছিলটি ঢাকা সাইন্সল্যাব বাটা সিগন্যাল মোড় থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ধানমন্ডি সিটি কলেজের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। দলের এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। 

বিক্ষোভ মিছিল পরর্বতী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ড. হেলাল বলেন, সরকার পরিকল্পিত ভাবে দেশে ফ্যাসিবাদী বাকশালী রাজত্ব কায়েম করছে। এরই ধারাবাহিকতায় সরকার জামায়াত নেতৃবৃন্দ সহ বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীদেরকে গনগ্রেফতার, খুন, গুম, অপহরণ পথ বেছে নিয়েছে। ক্ষমতাসীনদের এইসব অপতৎপরতা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে দেশের মানুষ অতিষ্ট ও বিক্ষুব্ধ। সরকারকে অবিলম্বে এসব অপতৎপরতা ও ষড়যন্ত্র বন্ধ করে ভারপ্রাপ্ত আমীরে জামায়াত অধ্যাপক মুজিব সহ গ্রেফতারকৃত জামায়াত নেতাকর্মীকে মুক্তি দিতে হবে এবং সকল ধরনের পুলিশি হয়রানি বন্ধ করতে হবে অন্যথায় ভবিষ্যতে এর জন্য তাদেরকে চরম মূল্য দিতে হবে।

তিনি আরোও বলেন, সরকার ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে ৫ই জানুয়ারির মত বিরোধী দল বিহীন আরেকটি প্রহসনের নির্বাচন করে আবারো ক্ষমতায় টিকে থাকার অপচেষ্টা করছে। এজন্য তারা বিরাজনীতি করনের পথ বেছে নিয়েছে। পুলিশ বাহিনীকে তারা আওয়ামী লাঠিয়াল বাহিনীতে পরিণত করেছে। তারা অন্যায় ভাবে জনগণের সাংবিধানিক অধিকার সমূহকে পদদলিত করছে। সরকার দেশের গণতান্ত্রিক পরিবেশকে নসাৎ করে একদলীয় বাকশাল কায়েম করার যে হীন ষড়যন্ত্র করছে তাতে পুলিশ সক্রিয় সহযোগিতার ভূমিকা পালন করছে। তিনি পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, জনগণের অধিকার রক্ষায় আপনারা ভূমিকা পালন করেন কোন ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন আপনাদের কাজ নয়। তিনি সরকার ও পুলিশকে জনগণের সাংবিধানিক অধিকার রক্ষায় শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন-কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও মহানগরী কর্মপরিষদ সদস্য মুকাররম হোসাইন, মহানগরী কর্মপরিষদ সদস্য শামসুর রহমান, কামাল হোসেন, মহানগরী মজলিশে শূরা সদস্য আমিনুর রহমান, সগির বিন সাইদ, এ্যাড জসিম উদ্দিন তালুকদার, মোঃ আহসান উল্লাহ, মহিব্বুল হক ফরিদ, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের ঢাকা  মহানগরী পূর্বের সভাপতি সোহেল রানা মিঠু, ঢাকা কলেজ সভাপতি মেহেদী হাসান সানি, শিবির ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ সেক্রেটারি তারিক মাসুম, জামায়াত নেতা আব্দুস সাত্তার সুমন, শাহিন আহমেদ খান, ছাত্রনেতা আব্দুল্লাহ আল মারুফ, হাফিজুর রহমান, মাইনুল ইসলাম প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ