ঢাকা, বৃহস্পতিবার 15 March 2018, ১ চৈত্র ১৪২৪, ২৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাতক্ষীরায় চলতি মওসুমে গমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

আবু সাইদ বিশ্বাস, (সাতক্ষীরা) থেকে: স্বল্প সময় ও স্বল্প খরচে অধিক লাভবান হওয়ায় সাতক্ষীরার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গম চাষে ঝুঁকে পড়েছে কৃষকমহল। কৃষকদের চাষাবাদকৃত গমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। কৃষকদের মুখে এখন হাসির ঝিলিক । গম পরিচর্যায় কৃষকরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছে ।
গমের চাহিদা বাড়ায় এবং দাম বেশি পাওয়াতে দিন দিন এ জেলাতে গমের আবাদ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া জ্বালানির চাহিদা মেটাতে কৃষকরা গম চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।
সাতক্ষীরা সদর,তালা ও পাটকেলঘাটার বেশ কিছু গ্রামাঞ্চলে ঘুরে দেখা গেছে দিগন্ত জুড়ে দুলছে গাঢ় সবুজের  গম ক্ষেত।
তালা উপজেলার খলিষাখালীর হাজরা পাড়ার গম চাষী আব্দুল কাদের জানান, গম চাষাবাদ খুব সহজ এবং স্বল্প সময়ে অধিক লাভজনক ফসল। তিনি এবছর দুই বিঘা জমিতে গমের আবাদ করেছেন। গত বছরের তুলনায় এ বছর ভালো ফলন হবে বলে তিনি আশা করছেন।
কৃমিরার আরশাদ আরশাদ আলী বলেন, গম চাষাবাদে খরচ এবং রোগ বালাই খুব কম হয় । এবছর আমি এক বিঘা জমিতে গম চাষ করেছি, ফলন ভাল হয়েছে। গম চাষে লাভ বেশি হওয়ায় কৃষকরা দিনদিন আগ্রহী হচ্ছে এদিকে। তিনি ভাল দাম পাওয়ার আশা করছেন।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর  সূত্র জানায় চলতি মওসুমে সাতক্ষীরা জেলাতে গমের লক্ষ মাত্রা ধরা হয়েছে  ১হাজার ৫৫০ হেক্টর জমিতে। উৎপাদনের লক্ষ মাত্রা ধরা হয়েছে ৫ হাজার ১৯৩ মেঃটন। সদরে আবাদ হয়েছে ৫৪৫ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ মাত্রা ধরা হয়েছে ১৮২৬ মেঃটন। কলারোয়াতে আবাদ হয়েছে ২০৫ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬৮৭ মেঃটন। তালাতে আবাদ হয়েছে ৬১০ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২০৪৪ মেঃটন। দেবহাটাতে আবাদ হয়েছে ১৫ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫০ মেঃটন।
কালিগঞ্জে আবাদ হয়েছে ১০৯ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩৬৫ মেঃটন। আশাশুনিতে আবাদ হয়েছে ৪৭ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৫৭ মেঃটন। শ্যামনগরে আবাদ হয়েছে ১৯ হেক্টর জমিতে যা থেকে উৎপাদনের লক্ষ্য মাত্রা ধরা হয়েছে ৬৪ মেঃটন।
এসব আবাদি জমিতে ভাল ফলন পেতে ‘বারী-গম’এর চাষ করেছেন কৃষকরা। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় চাষীরা ভাল ফলন পাওয়ার আশা করছে।
এবিষয়ে সাতক্ষীরা খামার বাড়ির কৃষি উপপরিচালক আব্দুল মান্নান জানান,আমরা কৃষকদের  গম চাষে উদ্বুদ্ধ করতে নানামুখি পদক্ষেপ নিয়েছি। গমে রোগ বালাই কম । চাষীরা যাতে গম চাষে আগ্রহী হয় সে বিষয়ে কৃষিকর্মকর্তারা চাষীদের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ