ঢাকা, বৃহস্পতিবার 15 March 2018, ১ চৈত্র ১৪২৪, ২৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মদনপুরে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণের দাবি এলাকাবাসীর

সোনারগাঁ সংবাদদাতা : ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার মদনপুর বাসস্ট্যান্ড অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ জনবহুল এলাকা। এ স্থানটি থেকে চারদিকে সংযোগ সড়ক যুক্ত হয়েছে। ফলে বিভিন্ন অঞ্চলের সাথে যুক্ত হয়ে মদনপুর বাসস্ট্যান্ড দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করছে কয়েক লাখ পথচারী। জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ বাসস্ট্যান্ডে একটি ফুট ওভারব্রিজ না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার হচ্ছে মানুষ। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে মারাত্মক দুর্ঘটনাসহ প্রাণহানী। স্থানটিতে হাইওয়ে পুলিশ দায়িত্ব পালন করলেও রাস্তা দিয়ে চলাচলরত বাস ট্রাক ও বিভিন্ন যানবাহনসহ এখান দিয়ে রাস্তা পারাপার রত লোকজনকে নিয়ন্ত্রণ করতে তাদের হিমসিম খেতে হয় প্রতিনিয়ত। এ বিষয়টি নিয়ে বারবার প্রশাসনের নজরে আনলেও কোন ফল পায়নি এলাকাবাসী। এতে ভুক্তভোগীদের মাঝে বিরাজ করছে চরম হতাশা।
সরেজমিনে গিয়ে পথচারী ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাযায়, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের মদনপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে উত্তর দিকে বাইপাস সড়ক (এশিয়ান হাইওয়ে) মদনপুর- জয়দেবপুর, দক্ষিণ দিকে মদনপুর-বন্দর, পূর্ব ও পশ্চিম দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক যুক্ত হয়েছে। এ বাসস্ট্যান্ড দিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেট-গাজিপুর-জয়দেবপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ভারী যানবাহন চলাচল করে। এছাড়া এলাকার ছোট-বড় সবধরনের যানবাহনের চলাচলতো রয়েছেই। তাই স্বাভাবিকভাবে দিন-রাত চব্বিশ ঘণ্টা এ সড়ক দিয়ে চলাচল করে দ্রুত গামী কভার্ডভ্যান, লরি, মালবাহী ট্রাক, যাত্রীবাহী বাস, সিএনজি, অটোরিক্সা, রিক্সাসহ হাজার হাজার যানবাহন। ভারী যানবাহন চলাচলের প্রধান সড়কের মূল পয়েন্ট হিসেবে চালকরা ব্যবহার করলেও এখানে নেই কোন ফুট ওভারব্রিজ । ফলে প্রতিনিয়ত রাস্তা পারাপারের সময় দ্রুতগামী যানবাহনের ধাক্কায় মারাত্মাক দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে অনেক পথচারী। ঘটছে প্রাণহানী এতে নিঃস্ব হচ্ছে অনেক পরিবার।
তাছাড়া আশপাশের অন্যসব এলাকার তুলনায় মদনপুরে রয়েছে ব্যাংক, বীমা, স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, মার্কেট, শিল্প প্রতিষ্ঠান। সোনারগাঁ ও বন্দর উপজেলার যোগাযোগের প্রধান বাসস্ট্যান্ড এটি। স্বাভাবিকভাবেই এখানে লোক সমাগম অন্য এলাকার তুলনায় একটু বেশি। তাছাড়া এই বাসস্ট্যান্ড দিয়ে দৃটি উপজেলার প্রতিদিন কয়েক হাজার স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থী, অফিস আদালতের কর্মজীবীসহ সকল পেশার মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করতে হয়। এলাকার ব্যস্ততম প্রধান বাসস্ট্যান্ড হলেও এখানে নেই কোন ফুট ওভারব্রিজ । ফলে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় নানাধরনের দুর্ঘটনা।
এ ব্যাপারের শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক ও দবির উদ্দিন ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মো ঃ কামাল হোসেন বলেন, আমি প্রতিদিন এই বাসস্ট্যান্ড দিয়ে যাত্রাবাড়ী আসা-যাওয়া করি। রাস্তা পারাপারের সময় অনেক ভয় হয়। আমি অনেক দুর্ঘটনা দেখেছি এ বাসস্ট্যান্ডে। এখানে দায়িত্বরত পুলিশ থাকলেও অনেক পরিবহন ও পথচারী থাকায় তাদেরও হিমশিম খেতে হয়। তাই সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে ও জনস্বার্থে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ করা জরুরি প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।
ব্যবসায়ী আরিফ ও শফিকুল ইসলাম জানান, আমরা ব্যবসা করি এখানে ৫ বছর ধরে । কত ছোট-বড় দুর্ঘটনা দেখেছি । রাস্তা পারাপারের অনেক হিমশিম খেতে হয়। তাই ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে দ্রুত ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ করা দাবি জানান তারা। এ বিষয়ে স্থানীয় কয়েকজন জন প্রতিনিধি বলেন, এখানে জনস্বার্থে ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ করা জন্য প্রশাসনের কাছে কয়েক বার মৌখিক ও লিখিত ভাবেও অনুরোধ করা হয়েছে। বিভিন্ন সময় প্রশাসন ও র্শীষ নেতারাও প্রতিশ্রুতি দিয়ে মানুষকে শুধু শান্তনা দিয়ে যায়। কোন কাজ হয় না। তাই এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে আমরা প্রসাশনের কাছে জোর দাবি জানাই দ্রুত যেন ফুট ওভারব্রিজটি নির্মাণ করে পথচারীদের দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ