ঢাকা, বৃহস্পতিবার 15 March 2018, ১ চৈত্র ১৪২৪, ২৬ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হাইকোর্টের আদেশ জালিয়াতি জামিন নিতে এসে কয়রার কলেজ শিক্ষক কারাগারে

খুলনা অফিস : হাইকোর্টের জামিন আদেশ জালিয়াতি করে খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্থায়ী জামিন আবেদন করায় কলেজ শিক্ষক মো. রবিউল ইসলামকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক (ভারপ্রাপ্ত) মো. রেজাউল করিম এ আদেশ দিয়েছেন। ট্রাইব্যুনালের পিপি অলোকা নন্দা দাস এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষক কয়রা সরকারি মহিলা কলেজের (আইসিটি) বিভাগের প্রভাষক। তিনি ১নং কয়রার মো. আশরাফ আলীর ছেলে। কয়রা থানায় দায়ের হওয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের একটি মামলার আসামী তিনি।
মামলার বাদী লায়লা বেগম জানান, আদালতের আদেশক্রমে ২০১৭ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি কয়রা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১ (খ) ধারায় শিক্ষক মো. রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় তিনি পলাতক থেকে হাইকোর্টের ক্রিমিনাল মিস ২৯৩৯/১৭নং জামিন আদেশ চলতি বছরের ৩ জানুয়ারি নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে দাখিল করেন এবং অস্থায়ী জামিন নেন। পরবর্তীতে হাইকোর্টের ক্রিমিনাল মিস ২৯৩৯/১৭ নম্বরের সূত্র ধরে খোঁজখবর নেন বাদী পক্ষ। কিন্তু তল্লাশিতে বেরিয়ে আসে আসল রহস্য। নম্বরটি সঠিক হলেও এটি রংপুর বিভাগের একটি মামলার ক্রি. মিস কেস নম্বর বলে হাইকোর্ট থেকে নিশ্চিত হন বাদী।
মঙ্গলবার মামলার আসামী কলেজ শিক্ষক মো. রবিউল ইসলাম ওই জালিয়াতি আদেশে স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন। একই সাথে ওই আদেশের বিপক্ষে হাইকোর্টের সার্টিফাইট কপি দাখিল করেন বাদী পক্ষ। আদালতের বিচারক শুনানি শেষে মো. রবিউল ইসলামকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ