ঢাকা, শুক্রবার 16 March 2018, ২ চৈত্র ১৪২৪, ২৭ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অধিকার সুরক্ষায় ভোক্তাকেও এগিয়ে আসতে হবে ---বাণিজ্যমন্ত্রী

 

স্টাফ রিপোর্টার:  ভোক্তার অধিকার সুরক্ষায় সরকার সবধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করে যাচ্ছে, ভোক্তাকেও এগিয়ে আসতে হবে। দেশব্যাপী পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে এখন সুফল পাওয়া যাচ্ছে। জাতীয় সংসদে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন প্রণয়ণ করা হয়েছে, সে মোতাবেক জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা করে ভোক্তার স্বার্থ রক্ষায় কাজ করা হচ্ছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) আয়োজিত বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সেমিনারে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ  প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাজার অভিযানের মাধ্যমে ভোক্তাদের স্বার্থ বিরোধী কাজের জন্য অভিযুক্তদের জেল-জরিমানাসহ প্রয়োজনীয় আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। বিগত ৮ বছরে দেশব্যাপী বাজারে বিপুল সংখ্যক অভিযান চালানো হয়েছে, জেল-জরিমানা করা হয়েছে। সচেতনতার মাধ্যমে ভোক্তাদের অধিকার পুরোপুরি প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। অভিযোগকারীরে জরিমানার ২৫ শতাংশ অর্থ তাৎক্ষণিক ভাবে ক্ষতিপূরণ হিসেবে পরিশোধ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, সরকার ভোক্তার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সুস্পর্ক রেখেই সবধরনের আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করে যাচ্ছে। সরকারের বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণের কারণে এখন আর কোন খাদ্য দ্রব্যে ফরমালিন ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে না। খাদ্যে ভেজাল মেশানোর বিরুদ্ধে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন,খাদ্যের মান নিয়ে কোন ধরনের ছাড় দেয়া হবে না। এ নিয়ে সরকার বিশেষভাবে কাজ করছে। খাদ্যের মান নিয়ন্ত্রণে জনগণেরও অনেক ভূমিকা রয়েছে। মানহীন খাবার জনগণ বর্জন করলেই মুনাফা লোভী ব্যবসায়ীরা তা বন্ধ করতে বাধ্য হবে।

তিনি বলেন, কোম্পানীগুলো অধিক মুনাফার লোভী খাদ্যে ভেজাল মিশিয়ে থাকেন। এতে করে আমাদের স্বাস্থ্যের অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে। কেজিতে ২-১ টাকা বেশি অর্জনের জন্য রাষ্ট্রের অনেক বড় ক্ষতি করে থাকেন। মানুষ জেনে শুনেই মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছেন। এরা আসলে কোন ব্যবসায়ীরা না। আসলে এরা দেশের শক্র। এদের বিরুদ্ধে আমাদের আরও সজাগ হতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ