ঢাকা, শুক্রবার 20 April 2018, ৭ বৈশাখ ১৪২৫, ৩ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হবিগঞ্জে ধর্ষণ মামলা ‘তুলে না নেওয়ায়’ তরুণীকে কুপিয়ে হত্যা

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় এক তরুণীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার উপজেলার পুরাইকলা বাজার সংলগ্ন হাওর থেকে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে শায়েস্তাতাগঞ্জ থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান।

নিহত বিউটি আক্তার (১৬) উপজেলার ব্রাহ্মণডুরা গ্রামের সায়েদ আলীর মেয়ে।

এরআগে বিউটিকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে আদালতে মামলা হলে এক সপ্তাহ আগে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, বিউটিকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে মামলা করেন বাবা সায়েদ আলী। যাতে একই এলাকার মলাই মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়াসহ তিন জনকে আসামি করা হয়। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে মেয়েটির শারীরিক পরীক্ষা করানো এবং এফআইআর হিসেবে নথিভুক্ত করার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেয়।

নির্দেশ পেয়ে এক সপ্তাহ আগে পুলিশ হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে বিউটির ডাক্তারি পরীক্ষা করায় বলে জানান তিনি।

ওসি আনিছুর বলেন, শনিবার স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে হাওর থেকে বিউটির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশের শরীরে ৮/১০ টি ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। তবে তাকে কে বা কারা কেন হত্যা করেছে তা তদন্তের পরই জানা যাবে।

বিউটির বাবা সায়েদ আলী বলেন, “শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই বিউটিকে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

“সকালে হাওরে লাশ পড়ে রয়েছে খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে মেয়ের লাশ দেখতে পাই।

মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাবুলসহ আসামিরা বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। মামলা তুলে না নেওয়ায় তারা পরিকল্পিতভাবে আমার মেয়েকে হত্যা করেছে।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ