ঢাকা, সোমবার 19 March 2018, ৫ চৈত্র ১৪২৪, ৩০ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খন্দকার আয়েশা সিদ্দিকার পিতার ইন্তিকাল

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য এবং ঢাকা মহানগরী উত্তরের মহিলা বিভাগের সেক্রেটারি খন্দকার আয়েশা সিদ্দিকার পিতা খন্দকার মোজাম্মেল হক গত শনিবার রাত ৮.১৫টায় রাজধানীর ধানমন্ডির ইবনে সিনা হাসপাতালে ইন্তিকাল করেছেন-ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। তিনি ২ ছেলে ও ৪ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুম দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত অসুস্থতাসহ নানাবিধ শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন। কর্মজীবনে তিনি সরকারি কর্মকর্তা হিসাবে কর্মরত ছিলেন। তার স্ত্রী মরহুমা খন্দকার মমতাজ বেগমও কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সম্মানিত সদস্যা ছিলেন। তার জামাতা হেমায়েত হোসাইন ঢাকা মহানগরী উত্তরের কর্মপরিষদ সদস্য।
গত শনিবার রাত ১১.৩০ ঢাকার কল্যাণপুরে মরহুমের ১ম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।  জানাজা নামাজে ইমামতি করেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আব্দুল হালিম। নামাজে জানাজায় বিপুল সংখ্যক সাধারণ মুসল্লি উপস্থিত ছিলেন। ঢাকায় জানাজা শেষে মরহুমের কফিন ঝালকাঠি সদর উপজেলার দিবাকরকাঠি গ্রামে পাঠানো হয় এবং গতকাল বাদ আছর স্থানীয় ফকিরবাড়ী মসজিদে শেষ নামাজে জানাজা শেষে তাকে বরিশাল মুসলিম গোরস্তানে দাফন করা হয়েছে।
ভারপ্রাপ্ত আমীরের শোক : জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর মহিলা বিভাগের সেক্রেটারি খন্দকার আয়েশা সিদ্দিকার পিতা খন্দকার মোজাম্মেল হকের ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করে জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি মাওলানা আ.ন.ম. শামসুল ইসলাম গতকাল সোমবার শোকবাণী দিয়েছেন। 
শোকবাণীতে তিনি বলেন, খন্দকার মোজাম্মেল হক (রাহিমাহুল্লাহ)কে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা ক্ষমা ও রহম করুন এবং তাকে নিরাপত্তা দান করুন। তাকে সম্মানিত মেহমান হিসেবে কবুল করুন ও তার কবরকে প্রশস্ত করুন। তার গুণাহ-খাতাগুলোকে নেকিতে পরিণত করুন। তার জীবনের নেক আমলসমূহ কবুল করে তাকে জান্নাতুল ফিরদাউসে স্থান দান করুন।
তিনি শোকবাণীতে তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বলেন, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা তাদেরকে এ শোকে ধৈর্য ধারণ করার তাওফিক দান করুন।
ঢাকা মহানগরী উত্তরের শোক : খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন।
এক শোকবাণীতে মহানগরী উত্তর আমীর বলেন, খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে ইসলামী আন্দোলন একজন নিবেদিত প্রাণ মানুষকে হারালো। তার মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা সহজেই পূরণীয় নয়। তিনি দেশে ন্যায়-ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখতেন।  মহানগরী আমীর মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান এবং তাদের ধৈর্য ধারণের তাওফিক কামনা করেন।
ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের শোক : খন্দকার মোজাম্মেল হকের ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত আমীর মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া। এক শোক বার্তায় তিনি মরহুম খন্দকার মোজাম্মেল হকের বিভিন্ন অবদানের কথা স্মরণ করে এ শোক প্রকাশ করেন।
জনাব ভূঁইয়া মরহুম খন্দকার মোজাম্মেল হকের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন ও তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান। তিনি আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের কাছে দোয়া করেন, আল্লাহ যেন মরহুমের নেক আমলসমূহ কবুল করে তাকে জান্নাতবাসী করেন এবং তার পরিবার ও আত্মীয় স্বজনকে সবর করার তৌফিক দান করেন।
ঢাকাস্থ ঝালকাটি ফোরামের শোক : খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন ঢাকাস্থ ঝালকাটি ফোরামের সভাপতি লস্কর মোহাম্মদ তসলিম ও সেক্রেটারি মো. খলিলুর রহমান। এক শোকবাণীতে ফোরাম নেতৃদ্বয় খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি তার নেক আমলগুলোকে কবুল করে নিয়ে মরহুমকে জান্নাত দানের জন্য মহান আল্লাহ তায়ালার দরকারে দোয়া করেন এবং তার শোকবাহ পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ