ঢাকা, মঙ্গলবার 20 March 2018, ৬ চৈত্র ১৪২৪, ১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে রাস্তার সংস্কার

মাদারীপুর সংবাদদাতা: বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ছোয়ায় মাদারীপুরের সর্বত্র রাস্তাঘাট বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মান হলেও বিএনপির ঘাটি বলে পরিচিত কুলপদ্দি এলাকায় তেমন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি।বিশেষ করে কুলপদ্দি থেকে নৌকা ঘাটা পর্যন্ত প্রায় দেড়কিলোমিটার জনগুরুত্বপুর্ণ রাস্তাটি দীর্ঘদিনেও সংস্কার  না করায় জনদুভোর্গ চরমে ওঠে।এ সড়কের সংস্কার কাজের টেন্ডার  হলেও  কাজ শুরু না হওয়ায় এবং যাতায়াতে দুভোর্গ চরম আকার ধারন করায়   এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। দুর্ভোগ এত চরমে পৌছেছে যে এলাকার  যুব সমাজের উদ্যোগে  গতকাল শনিবার দিন ব্যাপী রাস্তা সংস্কারে ব্যক্তিগতভাবে অর্থসংস্থান করে  এ দেড়কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে।
এলাকাবাসী জানান, কুলপদ্বী চৌরাস্তা থেকে কালকিনি পর্যন্ত সড়কটি মূলত মাদারীপুর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আওতাধীন। দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার মেরামত না করায় রাস্তাটিতে বিভিন্ন অংশে ভেঙ্গে যায় এবং বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। যাতে রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী যানবাহনসহ যাত্রীদের পড়তে হয় চরম দুর্ভোগে। প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা। রাস্তার বেহাল অবস্থা সর্ম্পকে সড়ক ও জনপথ বিভাগে কর্তৃপক্ষকে  একাধিকবার অবহিত করা হলেও তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। গত প্রায় ১মাসআগে এ সড়কের সংস্কারে জন্য টেন্ডার হলেও কোন কাজ শুরু হয়নি । ফলে জনগুরুত্বপুর্ণ এ সড়কে যাতায়াতে দুর্ভোগ সৃষ্টি হওয়ায় তিন /চারদিন পূর্বে থেকে এলাকার যুবকরা মিলে টাকা তুলে ইট, বালু কিনে রাস্তার মেরামত কাজ শুরু করে। শনিবার এলাকাবাসীর সাথে রাস্তা মেরামতের কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় মাদারীপুর পৌরসভা। পৌরসভার পক্ষ থেকেও ইটের খোয়া, বালু ও রোলার মেশিন দিয়ে রাস্তা মেরামতে সহযোগিতা করা হচ্ছে।
এলাকা যুবক সবুজ খান, শান্ত, আবুল হাসান, টুটুল, রায়হান বলেন, মাদারীপুর শহরের সাথে উপজেলা পরিষদের সামন থেকে কালকিনি উপজেলায় যাতায়াতের জন্য এই রাস্তাটি খুবই গুরুত্বপূর্ন। সদর ও কালকিনি উপজেলার হাজার হাজার মানুষ এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে। কিছুদিন পূর্বে ভাঙা রাস্তা দিয়ে আসার সময় রাস্তার ঝাকিতে একজন গর্ভবর্তী মহিলার বাচ্চা প্রসব হয়েছে। তাছাড়া রাস্তার মধ্যে বড় বড় গর্ত থাকায় ইজিবাইক, ভ্যান, রিক্সাসহ সকল ধরনের যানবাহন চলাচলে খুবই সমস্যা হতো। মাঝে মধ্যে ঘটতো দুর্ঘটনা। সড়ক অফিসে রাস্তা মেরামতের জন্য একাধিকবার জানালেও তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। তাই আমরা এলাকার যুবকরা মিলে নিজের অর্থায়নে স্বেচ্ছায় রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু করি।
কুলপদ্বী এলাকার বাসিন্দা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম বলেন, রাস্তাটি অনেক দিন ধরেই ভেঙে গিয়েছে। রাস্তার মধ্যে বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহনসহ মানুষের চলাচলে মারাত্মক সমস্যা সৃষ্টি হতো। রাস্তা মেরামতের জন্য এলাকার যুবকসহ আমরা সকলে টাকা দিয়ে ইট, বালু ক্রয় করে নিজেরা স্বেচ্ছায় রাস্তা মেরামত করছি
 এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী  মো: নুরুন্নবী তরফদার ঢাকায় অবস্থান করায় উপ-সহকারী প্রকৌশলী  আমির হোসেন বলেন ১৫/২০ দিন আগে ওই সড়কের সংস্কার কাজের টেন্ডার হয়েছে কিছু মাটি ভরাটের কাজ হয়েছে। আশা করি কয়েকদিনের মধ্যে পুর্নাঙ্গ কাজ শুরু হবে।
তবে টেন্ডার পাওয়া টিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স ইউনুছ এন্ড ব্রাদারস এর স্বত্বাধিকারী আতিকুর রহমান ও এজাজ আহমেদ এর সাথে যোগাযোগে চেষ্টা করেও তাদের  কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ