ঢাকা, বৃহস্পতিবার 22 March 2018, ৮ চৈত্র ১৪২৪, ৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইসলামী ব্যাংক মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে ---------ড. মশিউর রহমান

ইসলামিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানে তারল্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক কর্মশালা উদ্বোধন করেন ড. মসিউর রহমান

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ও জেনারেল কাউন্সিল ফর ইসলামিক ব্যাংকস এন্ড ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশনস (সিবাফি)-এর যৌথ উদ্যোগে ‘লিকুইডিটি ম্যানেজমেন্ট টুলস ফর ইসলামিক ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশনস’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কর্মশালা শুরু হয়েছে। ২১ মার্চ বুধবার প্যান প্যাসিসিফ সোনারগাঁ হোটেলে কর্মশালা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান। ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্যান আরাস্তু খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার ছিলেন সিবাফি’র মহাসচিব আবদেলিলাহ বেলাতিক এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন এ্যাক্টিং অর্থ সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার। স্বাগত বক্তব্য দেন ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. মাহবুব উল আলম। কর্মশালায় দেশী বিদেশী বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও গবেষকগণ অংশগ্রহণ করেন।   

ড. মসিউর রহমান প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ইসলামী ব্যাংকগুলো শরী‘আহর আলোকে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং সরকারঘোষিত মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। সম্পদভিত্তিক বিনিয়োগ করায় ইসলামী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ভালোভাবে পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক ইসলামিক ট্রেজারী বিল ও শুকুক-এর মত ইনস্ট্রুমেন্ট চালু করতে  কাজ করছে যা বাস্তবায়ন হলে শরী‘আহভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোর তারল্য ব্যবস্থাপনা সহজতর হবে। 

সভাপতির ভাষণে আরাস্তু খান বলেন, তারল্য ব্যবস্থাপনা প্রতিটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্যই অত্যন্ত গুরুত্ত্বপূর্ণ।  প্রচলিত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য তারল্য ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন ইনস্ট্রুমেন্ট থাকলেও ইসলামী ব্যাংকগুলোর জন্য তেমন কোন পৃথক ফাইন্যান্সিয়াল ইনস্ট্রুমেন্ট নেই। তিনি বাংলাদেশে ইসলামিক ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ইসলামিক ফাইন্যান্সিয়াল টুলস ‘শুকুক’ চালু করার পরামর্শ দেন।   

অন্যান্য বক্তারা বলেন, ইসলামিক ব্যাংকিং শিল্প বর্তমান বিশ্বে দ্রুত বর্ধনশীল। বিগত দশকে এর উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি হয়েছে। বিশ্বব্যাপী ইসলামী অর্থনীতির এই বিকাশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের মানি মার্কেটে নতুন নতুন শরী‘আহভিত্তিক ইনস্ট্রুমেন্ট চালু করতে তারা গবেষণার তাগিদ দেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ