ঢাকা, শনিবার 24 March 2018, ১০ চৈত্র ১৪২৪, ৫ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নিহত আলিফের জানাযা দাফন সম্পন্ন

খুলনা অফিস : নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত আলিফুজ্জামান আলিফের লাশ দাফন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার সেনের বাজার ইউছুফিয়া মাদরাসা কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এর আগে রূপসা উপজেলার বেলফুলিয়া ইসলামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে তার নামাযে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। আলিফের জানাযার নামাযে সর্বস্তরের মানুষের ঢল নামে। রাজনৈতিক ব্যক্তি, প্রশাসনের কর্মকর্তা, আত্মীয়-স্বজন, শুভাকাক্সক্ষী, প্রতিবেশীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার কয়েক হাজার মানুষ এতে অংশ নেন। এসময় শোকাবহ হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ।
নামাযে জানাযায় উপস্থিত ছিলেন- খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, খুলনা জেলা বিএনপির সভাপতি এডভোকেট এসএম শফিকুল আলম মনা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাবু, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরাফাত হোসেন পল্টু, বর্তমান সভাপতি পারভেজ হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ খান প্রমুখ।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে আলিফের লাশ হস্তান্তর করা হয়। আলিফের ছোট ভাই ইয়াসিন আরাফাত ও ছোট খালু শাহাবুর রহমান এ লাশ গ্রহণ করেন। এ সময় আলিফের বড় ভাই আশিকুর রহমান হামিম, খালা ও তার পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
নিহত আলিফুজ্জামানের বড় ভাই মো. আশিকুর রহমান হামীম বলেন, বিমানবন্দর থেকে বিকেল সাড়ে ৫টায় বের হয়ে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে মাগরিববাদ দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তারপর সেখান থেকে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা দেই। রাত ৩টার দিকে খুলনায় এসে পৌঁছাই।
এদিকে আলিফকে শেষ বিদায় দিয়ে মুহ্যমান হয়ে রূপসা পাড়ের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। আলিফের বন্ধু আত্মীয় সহপাঠীসহ পরিচিতজনেরা তার সঙ্গে বিভিন্ন স্মৃতির কথা আওড়াচ্ছেন।
আলিফের ভগ্নিপতি শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘৬ মাস আগে আলিফের বড় ভাই বিয়ে করেছেন। আলিফের বিয়েরও কথা চলছিল।’
উল্লেখ্য, গত ১২ মার্চ নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ৫১ জনের মধ্যে বাংলাদেশি ২৬ জনের মধ্যে আলিফ একজন। আলিফের বাড়ি খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতি গ্রামে। আইচগাতির একটি পেট্রোল পাম্পের ম্যানেজার মোল্লা মো. আসাদুজ্জামানের তিন ছেলের মধ্যে দ্বিতীয় আলিফুজ্জামান। পাঁচ বছর আগে সৌদি আবর থেকে ফিরে এসে ঠিকাদারী করতেন। বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি আলিফুজ্জামান মাস্টার্স পরীক্ষার্থী ছিলেন। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড খুলনা জেলা শাখার তথ্য ও প্রচার সম্পাদক ছিলেন তিনি। প্রবাস ফেরত আলিফ উজ্জামান ভ্রমণ পিপাসু মানুষ। এবারও নেপাল ভ্রমণের জন্য বেরিয়ে ছিলেন তিনি। তিনি খুলনা জেলা ছাত্রলীগের বিদায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন। গত ১২ মার্চ সকালে বিমানে উঠার পূর্বে যশোর বিমান বন্দরে দাঁড়িয়ে কয়েকটি সেলফি তুলে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন আলিফুজ্জামান। সেখানে তিনি লেখেন ‘বাই বাই খুলনা, ওয়েলকাম ঢাকা ১২/০৩/২০১৮’।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ