ঢাকা, বুধবার 28 March 2018, ১৪ চৈত্র ১৪২৪, ৯ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সড়ক অবরোধ ॥ কাফনের কাপড় পরে অবস্থান কর্মসূচি শিক্ষার্থীদের

সিলেট ব্যুরো : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থী মাহিদ আল সালাম হত্যার প্রতিবাদে মুখর শাবি শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার সময় তারা নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে সড়ক অবরোধ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে। এ সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা কাফনের কাপড় পরে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। এর আগে সকাল নয়টা থেকেই উত্তাল থাকে শবি ক্যাম্পাস। এ সময় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন বিভাগের অন্তত সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন। পরে ক্যাম্পাসে বিশাল বিক্ষোভ বের করা হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চৌহাট্টায় এসে শাবি শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ ও অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেন। এ সময় নিরাপদ সিলেটের দাবি জানান বিক্ষোভকারীরা।
এছাড়াও আন্দোলনকারীরা মাহিদ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের দাবি জানান। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে কাফনের কাপড় পরে রাস্তায় শুয়ে থাকেন কয়েকজন শিক্ষার্থী, আর তাদের চারপাশে গোল হয়ে বসে-দাঁড়িয়ে থাকে অন্যান্য শিক্ষার্থীরা। তাদের কণ্ঠে নিরাপদ সিলেটের দাবিতে স্লোগানে উত্তাল হয় নগরীর চৌহাট্টা চত্বর। আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা এ সময় “ছিনতাই ছিনতাই আর কতো রক্ত চাই, এতো এতো রক্ত কেনো? অনিরাপদ সিলেট নয় নিরাপদ সিলেট চাই, জাগো প্রশাসন জাগো অপরাধীদের ধরো, মাহিদ ভাই কি একলা মরছে? তার সাথে কি আমরা মরি নাই? আর কতো শুনবো আকাশবাণী? এবার আমরা বাঁচতে চাই মাহিদ হত্যার বিচার চাই, নিরাপদে বাঁচতে চাই বাঁচার মতো বাঁচতে চাই, হত্যা ছিনতাই রাহাজানি সব বন্ধ কর, সব ছাড়িয়া কলম ধর” সহ বিভিন্ন ব্যানার প্ল্যাকার্ড নিয়ে আন্দোলনে যোগ দেন। চৌহাট্টা মোড়ে এই অবস্থানের কারণে বন্ধ হয়ে যায় নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে সব ধরনের যান চলাচল। চৌহাট্টা থেকে আম্বরখানা, নয়াসড়ক, রিকাবী বাজার ও জিন্দাবাজার সড়কে দেখা দেয় তীব্র যানজট। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত এম্বুলেন্সকে গন্তব্যে যাওয়ার পথ তৈরি করে দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের ফলে সৃষ্ট সাময়িক অসুবিধার জন্য মাইকেও বারবার ক্ষমা প্রার্থনা করতে শোনা গেছে নগরবাসীর কাছে।
অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন শাবি অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন আহমদ, অর্থনীতি বিভাগের এলামনাই এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কাশ্মিরী রেজাসহ আরো অনেকেই। এদিকে, আন্দোলনরত শিক্ষার্থী মাহমুদ জানান, আমরা এখানে শুধু মাহিদ হত্যার বিচারের দাবিতেই আজ মাঠে নামিনি। আমরা চাই মাহিদের মতো আর যেনো কেউ এভাবে অকালে চলে যেতে না হয়। আমারা নিরাপদ সিলেট দেখাতে চাই। তাই আমারা আজ সবাই রাস্তায় নেমে এসেছি। তিনি জানান, এই আন্দোলনটি তারা ছড়িয়ে দিতে চান সারাদেশে। তারা চান না এভাবে আর কোন শিক্ষার্থীর বা অন্য কারো জীবন অকালে ঝরে যাক। মাহিদের হত্যাকারীকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি না করা পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে বলেও জানান তিনি।
 বেলা সাড়ে ১২টায় শুরু হওয়া অবস্থান কর্মসূচি শেষ হয় বেলা দেড়টায়। পরে আন্দোলনকারীরা মিছিল সহকারে হত্যাকারীদের গ্রেফতারসহ সিলেটের সড়কগুলো নিরাপদ করার দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপি দেন সিলেটের জেলা প্রশাসকের কাছে।
উল্লেখ্য, গত রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত শাবি শিক্ষার্থী মাহিদ আল সালামকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। তারা নিয়ে যায় মাহিদের সঙ্গে থাকা ব্যাগ ও ল্যাপটপ। তাৎক্ষণিকভাবে আহত মাহিদকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তিনি মারা যান। মাহিদ সিলেট থেকে ঢাকায় যাওয়ার জন্য কদমতলী বাসটার্মিনালের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ