ঢাকা, বৃহস্পতিবার 29 March 2018, ১৫ চৈত্র ১৪২৪, ১০ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৩য় দফায়ও পুলিশের অনুমতি মিলেনি

স্টাফ রিপোর্টার : তিন দফায়ও পুলিশের সাড়া না পাওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য জনসভা স্থগিত করেছে বিএনপি। গতকাল বুধবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরি সাংবাদিক সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভার অনুমতি নিয়ে পুলিশ টানবাহানা করেছে। এটা পরিষ্কার হয়ে গেছে তারা অনুমতি দেবেন না। এটাই হচ্ছে তাদের মনোবাঞ্ছনা। বিএনপির মতো একটি বৃহৎ রাজনৈতিক দলকে জনসভার অনুমতি না দেয়া স্বৈরাচারী আচরণেরই বর্হি প্রকাশ।
রিজভী বলেন, ভোটার বিহীন সরকার আন্তর্জাতিকভাবে স্বৈরাচারের যে স্বীকৃতি পেয়েছে তা আজকের যে ঘটনা বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা করতে না দেয়া সেটি অক্ষরে অক্ষরে প্রমাণিত হলো। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমরা ২৯ মার্চের জনসভা আপাতত স্থগিত করছি।
 কোনো স্থগিত করলেন প্রশ্ন করা হলে রিজভী বলেন, এখন বিকেল ৪টা বাজে। পুলিশ এখনো কিছু বলছে না। আমরা মঞ্চ তৈরি করবো কখন, নেতা-কর্মীদের অনগানাইজ করবো কখন? তার অর্থ তারা অনুমতি দেবে না। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে  গত ১২ ফেব্রুয়ারি এবং ১৯ মার্চ জনসভার করার জন্য মহানগর পুলিশের কাছে আবেদন করলেও অনুমতি দেয়নি পুলিশ। সর্বশেষ তারা ২৯ মার্চ জনসভার জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে আবেদন করে। রিজভী বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে উচ্চক্ষমতার প্রতিনিধিদল দেখা করার পর আমরা বিশ্বাস করতে চেয়েছিলাম সরকার জনসভার অনুমতি দেবে। কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গতকালই (মঙ্গলবার) সাংবাদিকদের বলেছেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জনসভার অনুমতি দেবে পুলিশ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্যে এটা প্রমাণিত হয়েছে যে দেশ চালাচ্ছে পুলিশ। আওয়ামী লীগ ক্ষয়িষ্ণু রাজনীতিতে পরিণত হয়েছে বলেই দেশটা এখন পুলিশের কবজায়। জনসভা করা একটি গণতান্ত্রিক অধিকার। এটার জন্য পুলিশী গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রয়োজন। কতরকমের যে তামাশা এই সরকার জানে তার কোনো অন্তনেই। রিজভী বলেন, আগামী ৪ এপ্রিল রাজশাহীতে যে জনসভা হওয়ার কথা রয়েছে সেটি পিছিয়ে ১৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। সাংবাদিক সম্মেলনে দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুঁইয়া, আবদুস সালাম, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ