ঢাকা, শুক্রবার 30 March 2018, ১৬ চৈত্র ১৪২৪, ১১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

‘দেশজ’ জাতীয় পান্ডলিপি প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

 

দেশজ প্রকাশন আয়োজনে গত ২৩ মার্চ সন্ধ্যায় বিশ^সাহিত্য কেন্দ্রের ইসফেন্দিয়ার জাহিদ হাসান মিলনায়াতনে ‘দেশজ জাতীয় পা-ুলিপি প্রতিযোগিতা ২০১৭’ এর পুরস্কার বিতরণী ও প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। কবি আল মুজাহিদী এর সভাপতিত্বে এবং ড. ফজলুল হক তুহিনের উপস্থাপনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন দেশজ প্রকাশন এর প্রকাশক মনোয়ারুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেণ্য কথাশিল্পী ও শিল্প-সমালোচক হাসনাত আবদুল হাই। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কথাশিল্পী দিলারা মেসবাহ, কবি জাহাঙ্গীর ফিরোজ, কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন, কথাশিল্পী নাজিব ওয়াদুদ প্রমূখ।

কবিতা, গল্প, উপন্যাস ও প্রবন্ধ এই ৪টি শাখায় অপ্রকাশিত, মৌলিক, সৃজনশীল এবং বাংলা ভাষায় রচিত পান্ডুলিপি প্রতিযোগিতার জন্য আহবান করা হয়। ১ জুন ২০১৭ থেকে ৩০ অক্টোবর ২০১৭ এর মধ্যে নিবন্ধন, পা-ুলিপি জমাদান সম্পন্ন হয়। দেশের প্রতিথযশা সাহিত্যিকদের দ্বারা বিচারিক কার্যক্রম সম্পন্ন করে ১ ডিসেম্বর ২০১৭ সর্বমোট ১৭টি পা-ুলিপিকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। পুরস্কার বিজয়ী লেখকদের মননচর্চা ও সৃজনধারাকে সঞ্জীবিত করার লক্ষে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী নির্বাচিত পা-ুলিপিগুলো খ্যাতিমান লেখক দ্বারা সম্পাদনাসহ সর্বোচ্চ মান বজায় রেখে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮ তে বই আকারে প্রকাশ করা হয়।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে কবিতায়- সায়ীদ আবুবকর, সৌম্য সালেক, আহমেদ বাবলু, মামুন সারওয়ার  ও মোস্তফা হায়দার। গল্পে: প্রিন্স আশরাফ, আসাদুল্লাহ্ মামুন, মঈন শেখ, প্রত্যয় হামিদ ও আখতার মাহমুদ। উপন্যাসে: প্রিন্স আশরাফ, ফাহ্মিদা বারী, হাবীব কাইউম। প্রবন্ধে: ড. আশরাফ পিন্টু, মুহাম্মদ ফরিদ হাসান, মঈন শেখ, সায়ীদ আবুবকর। পুরস্কার হিসেবে বিজয়ী পা-ুলিপি গ্রন্থাকারে প্রকাশ, ক্রেস্ট, সদন ও নগদ টাকা প্রদান করা হয়। প্রতিটি শাখায় প্রথম পুরস্কার ৩০ হাজার, দ্বিতীয় পুরস্কার ২৫ হাজার, তৃতীয় পুরস্কার ২০ হাজার, চতুর্থ পুরস্কার ১৫ হাজার এবং পঞ্চম পুরস্কার ১০ হাজার করে প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথি হাসনাত আবদুল হাই বলেন, দেশের সাহিত্য সংস্কৃতির এ বন্ধত্বের যুগে দেশজ প্রকাশন এর এই উদ্যোগে আমি খুবই আনন্দিত। এমন ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন আমাদের দেশে খুব একটা হয় না। আশা করি দেশজ এর এই আয়োজন সাহিত্যচর্চার ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা সৃষ্টি করবে। সাহিত্য সাধনা ও সৃজন তৎপরতায় এ-পুরস্কার লেখকদেরকে উদ্দীপ্ত করবে। শিল্প-সাহিত্যের প্রতি অঙ্গীকার, লেখকদের চর্চা ও মানস যাত্রার ক্রম-উত্তরণ আমাদের সাহিত্যের অগ্রগতিকে সমৃদ্ধ করবে। সভাপতির বক্তব্যে কবি আল মুজাহিদী বলেন, দেশজ এর জাতীয় পান্ডুলিপি প্রতিযোগিতর ২০১৭ এর সকল সমাপ্তি, আজকের এই অনুষ্ঠান, পুরস্কৃত বইগুলোর নান্দনিক প্রকাশনা আমাদেরকে আশান্বিত করেছে। আশা করি এই গৌরবময় যাত্রা সামনেও অব্যাহত থাকবে।

প্রকাশক মনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এদেশে কবি-সাহিত্যিকদের যথাযথ মূল্যায়নের অভাবে প্রতি বছরই অসংখ্য স্বপ্নরাজ প্রতিভার অকাল মৃত্যু ঘটে। এক্ষেত্রে দেশজ প্রকাশন একটি অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করতে চায়। রুচিশীল বইয়ের এই ঘাটতি ধীরে ধীরে পূরণ করতে চায় এবং কবি-সাহিত্যিকদের সহযোগিতাসহ চলমান ক্ষয়িঞ্চু ধারার বিপরীতে এই যাত্রা অটুট ও অব্যাহত রাখা হবে। 

অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেন, আবৃত্তিকার সৈয়দ আল জাবের, শাহ্ কামাল ও আলমগীর ইসলাম শান্ত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ