ঢাকা, শুক্রবার 30 March 2018, ১৬ চৈত্র ১৪২৪, ১১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হজ্ব নিবন্ধন করেছে ৯২ হাজারের বেশি

মিয়া হোসেন : সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯২ হাজারেরও বেশি হজ্বগমনেচ্ছু নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫ হাজার ৮৭৭ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৮৬ হাজার ৮৭৮ জনসহ মোট ৯২ হাজার ৭৫৫ জন নিবন্ধন করেছেন। এখনো নিবন্ধনের বাকি রয়েছে ৩৪ হাজার ৪৪৪। আগামী ১ এপ্রিল পর্যন্ত এ নিবন্ধনের কাজ চলবে। 

প্রাকনিবন্ধিত হজ্বগমনেচ্ছুদের নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয় ১ মার্চ। আর মাত্র তিনদিন পরই হজ্ব নিবন্ধনের জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বেঁধে দেয়া ১ এপ্রিলের সময়সীমা শেষ হবে।

ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ১ এপ্রিলের পর হজ্ব ও ওমরাহ নীতি অনুযায়ী পরবর্তী ক্রমিক থেকে নিবন্ধন সম্পন্ন করা হবে। সে ক্ষেত্রে পূর্বঘোষিত ক্রমিকের প্রাকনিবন্ধিত আর কেউ নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন না।

সৌদী সরকারের সঙ্গে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের করা হজ্ব চুক্তি অনুসারে চলতি বছর বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার যাত্রী হজ্ব পালন করবেন।

মোট হজ্বযাত্রীর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় গাইড ও রাষ্ট্রীয় খরচে হজ্বযাত্রীর/মোনাজ্জেমের জন্য ৪৫৮ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩ হাজার ৪শ’ জনের জন্য কোটা সংরক্ষিত রয়েছে। এ হিসেবে নিবন্ধনযোগ্য হজ্বযাত্রীর সংখ্যা সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ হাজার ৭৪০ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৬০০ জন।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধনযোগ্য সর্বশেষ ক্রমিক ১৬ হাজার ৭৪ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩ লাখ ৫২ হাজার ২৯৩।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এর আওতায় হজ্বে যেতে এবার তিন লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর আওতায় তিন লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা লাগবে।

প্রাকনিবন্ধনের সময় জমা দেয়া ২৮ হাজার টাকা বাদে প্যাকেজ-১ এর হজ্বযাত্রীদের তিন লাখ ৬৯ হাজার ৯২৯ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এর যাত্রীদের তিন লাখ তিন হাজার ৩৫৯ টাকা ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত ব্যাংকে জমা দিতে হচ্ছে।

যারা ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে হজ্ব করেছেন অথবা ভিসা পেয়েও হজ্বে যাননি তাদের মধ্যে যারা এবার হজ্ব করবেন তাদের অতিরিক্ত ৪৬ হাজার ৯৩৫ টাকা ওই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। কেউ আলাদা ফ্লাইটে হজ্বে যেতে চাইলে অবশ্যই আলাদাভাবে নিবন্ধন করতে হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ১৪ জুলাই হজ্ব ফ্লাইট শুরুর কথা রয়েছে। আর চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ আগস্ট হজ্ব হতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ