ঢাকা, শুক্রবার 30 March 2018, ১৬ চৈত্র ১৪২৪, ১১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় এমপিও পেলেন ১১১১ শিক্ষক কর্মচারী : বঞ্চিত ২১০ জন

 

খুলনা অফিস ঃ খুলনায় মার্চ মাসে ৬টি ক্যাটাগরিতে সর্বমোট এক হাজার ১১১ জনকে মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার (এমপিও) ভুক্ত করা হয়েছে। আবেদনপত্র, কোটা পূরণ না হওয়াসহ বিভিন্ন ত্রুটি-বিচ্যুতির কারণে সরকারি এই অনুদান থেকে বঞ্চিত হয়েছেন ২১০ জন প্রার্থী। আগামীতে তারা আবারও আবেদন করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের অন্তর্ভুক্ত খুলনা অঞ্চলের ১০ জেলা। নিয়ম অনুসারে প্রতি দুই মাস অন্তর করা হয় সরকারি অনুদানের অর্থাৎ এমপিওর অন্তর্ভুক্ত। মার্চ মাসে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে খুলনায় এমপিওর অনুমোদন পেয়েছে এক হাজার ১১১ জন। ছয়টি ক্যাটাগরিতে এই এমপিও অনুমোদন দেয়া হয়। ছয়টি ক্যাটাগরির মধ্যে রয়েছে এপি স্কেল, উচ্চতর স্কেল, টাইম স্কেল, বিএড স্কেল, কর্তন ও সংশোধনী। সর্বমোট এমপিওর মধ্যে সম্পূর্ণ নতুন এমপিওভুক্ত হয়েছেন ৮৭৮ জন, সংশোধনী এমপিও ৭৫ জন, টাইম স্কেল এমপিও সাতজন, বিএড স্কেল এমপিও ৬১ জন, ট্রান্সফার এমপিও ৫৮ জন, প্রমোশন এমপিও ৩০ জন এবং এরিয়ার এমপিও দুইজন। নতুন এমপিও প্রাপ্তদের মধ্যে কলেজের প্রভাষক রয়েছেন ৩৬৬ জন, লাইব্রেরিয়ান একজন, ইবতেদায়ী জুনিয়র ও সহকারী মৌলভী তিনজন, সহকারী শিক্ষক ৪৪০ জন, চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ৪১ জন এবং তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী রয়েছেন ১৯ জন। এদিকে নতুন এমপিও প্রাপ্তদের মধ্যে স্কুল পর্যায়ে এমপিও পেয়েছেন ৪৯২ জন, কলেজ পর্যায়ে ৩৭২ জন এবং মাদরাসা পর্যায়ে ১৪ জন রয়েছেন। 

এদিকে ২০১১ সালের ১৩ নবেম্বর এমপিওভুক্তের নীতিমালা বর্তমানে বাতিল করায় এমপিও আবেদনের চাপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আগামী এমপিওতে আরও চাপ বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও বেসরকারি স্কুল-কলেজে নিয়মানুযায়ী নারী কোটা পূরণ না থাকলেও পুরুষ আবেদন পড়েছে। এমপিওর সংশ্লিষ্ট আবেদনে রয়েছে পর্যাপ্ত ত্রুটি-বিচ্যুতি। স্কুল-কলেজে অনুমোদিত পদের চেয়ে অতিরিক্ত শিক্ষকের এমপিওর আবেদনও করা হয়েছে। তবে এ সকল কারণে মার্চ মাসের এমপিও থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে ২১০ জন আবেদন প্রার্থীকে।

খুলনা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রোগ্রামার মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নির্দেশনা থাকার পরেও ত্রুটি-বিচ্যুতি যুক্ত আবেদনের কারণে এমপিও বঞ্চিত করা হয়েছে। তবে এবার এমপিওর চাপ বেশি রয়েছে।

এ ব্যাপারে খুলনা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নিভা রাণী পাঠক বলেন, এমপিওভুক্ত নীতিমালা বাতিল হওয়ার কারণে এমপিও প্রার্থীর চাপ বাড়ছে। এখনও অনেক প্রার্থী কাগজপত্র প্রস্তুত করতে পারেনি। তবে আগামী মে মাসের এমপিওতে এর পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ