ঢাকা, রোববার 1 April 2018, ১৮ চৈত্র ১৪২৪, ১৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রশ্নপত্র ফাঁস ও প্রযুক্তির অপব্যবহার বন্ধের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার : প্রশ্নপত্র ফাঁস ও প্রযুক্তির অপব্যবহার বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশন। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত ‘প্রশ্নপত্র ফাঁস ও প্রযুক্তির অপব্যবহার বন্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনা সভায় এ দাবি জানানো হয়।
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, শিক্ষাই জাতির মেরুদ-। যে জাতি যত শিক্ষিত, সে জাতি তত উন্নত। শিক্ষাই উন্নয়নের মাপকাঠি হিসেবে পরিগণিত হয়। আবার কোনো জাতিকে ধ্বংস করতে হলে, তার শিক্ষা ব্যবস্থাতে প্রথম আঘাত হানতে হয়। বর্তমান সময়ে দেশ যখন অনুন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হচ্ছে, ঠিক সেই সময় শিক্ষার ওপর আঘাত হানছে একশ্রেণির চক্রান্তকারী, অসাধু শিক্ষা ব্যবসায়ী, অর্থলোভী, সরকারি ও আধা-সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, অসুস্থ প্রতিযোগিতায় নামা একশ্রেণির অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী ও প্রযুক্তির অপব্যবহারকারী।
তিনি বলেন, চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় অধিকাংশ প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার নজিরবিহীন ঘটনা ঘটলেও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দফতরসমূহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে। মহামান্য হাইকোর্টও দুটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছে।
প্রসঙ্গত, আগামী ২ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। প্রশ্ন ফাঁসরোধে শিক্ষা মন্ত্রণালয় পরীক্ষার ২৫ মিনিট আগে পাঁচ সেটের মধ্যে লটারির মাধ্যমে প্রশ্ন নির্ধারণ, পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে মুঠোফোন ও কোনো ধরনের ডিভাইস ব্যবহার নিষিদ্ধসহ নয়টি সুপারিশ করেছে। এত কিছুর পরও জনমনে শঙ্কা রয়েই গেছে। আমরা মনে করি প্রশ্ন ফাঁস করে যারা জাতিকে ধ্বংস করতে চায়, তারা জাতীয় শত্রু।
বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁসের মাধ্যমে শুধু শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করা হয়নি বাস্তবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকেও ধ্বংস করা হচ্ছে। দুঃখজনকভাবে ঘটনার দায়-দায়িত্ব নেবার কেউ নেই।
তিনি আরও বলেন, যে সরকার প্রশ্ন ফাঁসরোধ করতে পারে না সেই সরকারের নৈতিকতা নিয়েও জনমনে প্রশ্ন রয়েছে। তাই জনগণকেই প্রশ্ন ফাঁসরোধে এগিয়ে আসতে হবে।
আলোচনা সভায় সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক হুমায়ুন করিব হিরু, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান বঙ্গদীপ এম. এ ভাসানী, গণমোর্চার সমন্বয়কারী মোহাম্মদ মাসুম, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ফোরামের সভাপতি কবির চৌধুরী তন্ময় প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ