ঢাকা, রোববার 1 April 2018, ১৮ চৈত্র ১৪২৪, ১৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অপহৃত বিএনপি নেতা নজরুলের সন্ধান লাভের গুজব টাকা হাতিয়ে নেয়ার পাঁয়তারা এক প্রতারকের

ডুমুরিয়া (খুলনা) সংবাদদাতা : ডুমুরিয়ায় অপহৃত বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম জীবিতবস্থায় গতকাল মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। সকাল ১০টার দিকে ০১৯৭৭-৪৮৮৭৯৯ নাম্বার থেকে নিজেকে “দৈনিক নয়াদিগন্ত“ শ্রীপুর প্রতিনিধি হারুন অর রশিদ পরিচয় দিয়ে নয়াদিগন্তের ডুমুরিয়া প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন আকুঞ্জীকে ফোন করেন।ফোনে তিনি বলেন নজরুল ইসলামকে বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে আমি সহ কয়েকজন মিলে একটি বাজারে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে শ্রীপুর হাসপাতালে ভর্তি করেছি। তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন আছে। এরপর আনোয়ার হোসেন আকুঞ্জী দৈনিক লোকসমাজের ডুমুরিয়া প্রতিনিধি রুহুল আমীনকে জানালে তিনি বিষয়টির সত্যতা যাচাইয়ের জন্যে শ্রীপুর থানার ওসি মোঃ মাহাবুবুর রহমানের কাছে ফোন করলে তিনি জানান শ্রীপুরে কোন হাসপাতাল নেই। শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি দারিয়াপুর বাজারে অবস্থিত। এরপর তিনি লোকসমাজের শ্রীপুর প্রতিনিধি নাসির উদ্দিনের সহায়তায় দারিয়াপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার পল্লব কুমার সাহার কাছে জানতে চাইলে তিনি খোজ খবর নিয়ে বলেন এই নামে বা ওই চেহারার কোন রোগী গত ৩/৪ দিন হাসপাতালে ভর্তি হয়নি। এ সময় বিষয়টি সন্দেহজনক বলে মনে হয়।
এরই মধ্যে কথিত হারুন নজরুলের সহকর্মী মাওলানা নজরুল ইসলামকে ফোন করে বলেন নজরুল মারাত্মক অসুস্থ এক্ষুণি তাকে রক্ত দিতে হবে। এর জন্যে দ্রুত টাকা (বিকাশ নং-০১৭৭৫-৮১৫২৬৪) বিকাশ করতে হবে। বিষয়টি মাওলানা নজরুল ইসলাম সাংবাদিক রুহুল আমীনের কাছে জানালে তিনি টাকা দিতে নিষেধ করেন। এক পর্যায়ে নয়াদিগন্তের ষ্টাফ রিপোর্টার খালিদ সাইফুল্লাহ’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন হারুন নামে শ্রীপুরে আমাদের কোন প্রতিনিধি নেই। এরপর উক্ত প্রতারকের কাছে বিভিন্ন ভাবে জিজ্ঞাসা করতে থাকলে এক পর্যায়ে সে ফোন কেটে দেয়। পরবর্তীতে ওই নাম্বার আর খোলা পাওয়া যায়নি। এদিকে আঠারোমাইল নিউজ নামে একটি ফেসবুক আইডিতে নজরুলকে পাওয়া গেছে শিরোনামে একটি ষ্ট্যাটাস আপলোড দেয়া হয়। সেটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে গুজবটি দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।
পরবর্তীতে সংবাদটি ভুয়া বলে একাধিক ফেসবুক আইডিতে প্রচার করা হয়,কিন্তু ততক্ষনে নজরুলের পরিবারের পক্ষ থেকে মাইক্রোবাস নিয়ে শ্রীপুরের উদ্দেশ্যে চলে যায়। তবে সেখানে গিয়ে তারা কোন সন্ধান না পেয়ে ফিরে আসে।
এদিকে গত সোমবার নজরুলের ব্যবহৃত মুঠোফোন (০১৭১২-৩৫৭১২২) থেকে তার স্ত্রী তানজিলা বেগমের কাছে অজ্ঞাত পরিচয়ের কোন এক ব্যক্তি ফোন করে বলে নজরুল আমাদের কাছে আছে, দুই লক্ষ টাকা বিকাশ করলে আমরা তাকে সুস্থ্য অবস্থায় বাড়ি পৌছে দেব। কিন্তু পরে সেই নাম্বার আর খোলা পাওয়া যায়নি বা পরবর্তীতে আর কোন কলও আসেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ