ঢাকা, রোববার 1 April 2018, ১৮ চৈত্র ১৪২৪, ১৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ফরিদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালে তরুণীর মৃত্যু

ফরিদপুর সংবাদদাতা: ফরিদপুর ডায়াবেটিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৭ তলা ভবনে  অজ্ঞাত পরিচয় এক তরুণীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
বুধবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি হত্যা না অত্মহত্যা তা উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। তাৎক্ষণিক ওই তরুণীর পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তরুণীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে কোতয়ালী থানা পুলিশ।
কোতোয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক শাহিন আলম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করেছে। আনুমানিক ২২/২৫ বছর বয়সী তরুনীকে হাসপাতালে উপস্থিত কেউ চিনতে পারেনি।
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা যায়, ভবনের ভেতরে থাকা সিড়ির মাঝের ফাঁকা জায়গা দিয়ে বেশ উঁচু থেকেই ওই তরুণী নিচে পড়েছে। ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরের দেওয়ালে রক্ত লেগে আছে। ধারনা করা হচ্ছে উপর থেকে নিচে পড়ার সময় সিড়ির রেলিং এ আঘাতের ফলে শরীর থেকে বের হওয়া রক্ত দেয়ালে লেগে থাকতে পারে। তরুনীর মাথা থেতলে গেছে ও একটি পা ভেঙ্গে গেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফরিদপুর জেলা পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, যেভাবে আর যেখান থেকে তরুনীটি নিচে পড়েছে, সেটা কোনভাবেই আত্মহত্যা বলে মেনে নেয়া যায় না।
প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে ভবনের উপর দিকের কোনো ফ্লোর এর সিড়ি থেকে তাকে ধাক্কা দিয়ে অথবা অন্য কোথাও হত্যার পর এখান থেকে ফেলা হয়েছে।
ময়নাতদন্তের পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে তিনি জানান।
এদিকে ঘটনার পরে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর স্বজন ও স্থানীয় উৎসক জনতা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে তারা জানায়, একের পর এক এমন ঘটনা ঘটছে ফরিদপুর ডায়াবেটিক এসোসিয়েশনে। কিন্তু কোন ঘটনারই সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার হয়নি। সামান্য ক্ষতিপুরণ দিয়ে সব ঘটনা ধামাচাপা দেওয়া হচ্ছে। 
প্রসঙ্গত, গত বছরের শেষ দিকে এই হাসপাতালের লিফট এর নিচ থেকে মধ্য বয়সী এক নারীর অর্ধ গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হলেও আজও সে ঘটনার রহস্য উদঘাটন হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ