ঢাকা, সোমবার 2 April 2018, ১৯ চৈত্র ১৪২৪, ১৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় প্রযুক্তিগত সহায়তা দেবে

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে গত  বৃহস্পতিবার  ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ৪র্থ ও ৫ম ব্যাচের ছাত্রছাত্রীদের “ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্লেসমেন্ট” বা ইন্টার্ণশীপ- বিষয়ে এক ফিডব্যাক প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়।বিকাল ৩:৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত উক্ত ফিডব্যাক অনুষ্ঠানে চিফ পেট্রোন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন।
ফিডব্যাক অনুষ্ঠানে ভিসি বলেন, খাদ্য বিজ্ঞানের ছাত্রছাত্রীরা একমাস মালয়েশিয়ার তেরেঙ্গানু বিশ্ববিদ্যালয়ে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পেয়েছে- যা তাদের একজন দক্ষ গ্র্যাজুয়েট হিসেবে গড়ে উঠতে সাহায্য করবে। এছাড়াও তারা দেশের স্বনামধন্য খাদ্য শিল্প প্রতিষ্ঠানে হাতে-কলমে কাজ করেছে। শিক্ষার্থীরা কর্মক্ষেত্রে দেশের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণে ভূমিকা রাখতে পারবে।উপাচার্য আরও বলেন, খাদ্য শিল্প প্রতিষ্ঠানের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেলবন্ধন থাকতে হবে। খাদ্য শিল্প প্রতিষ্ঠান নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনের উদ্যোগ নিলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রযুক্তিগত সহায়তা দেবে।
অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক বলেন, ভেটেরিনারি বিশ^বিদ্যালয় একটি বিশেষায়িত উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ব্যতিক্রমধর্মী বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে এটি দেশের মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। ইন্টার্ণ ছাত্রছাত্রীরা দেশের বাইরে অবস্থান করে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পেয়েছে। এটি নি:সন্দেহে আনন্দদায়ক। আজকের শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ উল্লেখ করে তিনি বলেন, তোমাদেরকে আগামীর বাংলাদেশের হাল ধরতে হবে।ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ডা. মো. রায়হান ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নুরুল আবছার খান, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর এম. আ: হালিম,  ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর ড. শারিমন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বহিরাঙ্গন কার্যক্রম পরিচালক প্রফেসর ড. একেএম সাইফুদ্দীন। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো হয়। একই সাথে যেসব খাদ্যশিল্প প্রতিষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীরা ইন্টার্ণ কর্মসূচি সম্পন্ন করেছেন তাদের প্রতিনিধিদের হাতে সম্মাননাপত্র তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা ছাড়াও শিক্ষক, গবেষক, বিভিন্ন খাদ্য-শিল্প প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও প্রধান নির্বাহীগণ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ