ঢাকা, সোমবার 2 April 2018, ১৯ চৈত্র ১৪২৪, ১৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজশাহীতে একমাসে ৫১ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার 

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী অঞ্চলে এক মাসে বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ৫১ জন নারী ও শিশু। এর মধ্যে ২১ জন শিশু ও ৩০ জন নারী এই নির্যাতনের শিকার হয়েছে। গতকাল শনিবার উন্নয়ন সংস্থা  লেডিস অর্গানাইজেশন ফর সোসাল ওয়েলফেয়ার (লফস) এ তথ্য জানায়। এর মধ্যে ৬ জনকে হত্যা, ৮ জনের আত্মহত্যা, ২৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণ- যৌন নির্যাতন ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে জানানো হয়। অন্যদিকে, অ্যাসোসিয়েশন ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি এর তথ্য মতে, ৪৮ জন বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। জেলার নগর ও নয়টি থানায় এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। জেলায় গত মাসে ৩২ টি নারী নির্যাতনের মধ্যে নগরীর চারটি থানায় সংগঠিত হয়েছে ৫ জন। নগরীর বাইরের থানাসমূহে ২৭ জন নির্যাতনের শিকার হয়। এর মধ্যে দুর্গাপুরে ছয়, গোদাগাড়ীতে ৪, বাগমারায় ৪, তানোরে ৪, বাঘা ২, পুঠিয়ায় ২, চারঘাটে ২ ও পবায় ২ জন নির্য়াতনের শিকার হয়। এর মধ্যে হত্যার ঘটনা ৫টি, হত্যার চেষ্টা ২টি, রহস্যজনক মৃত্যু ২টি, অপহরণ ৩টি, যৌন হয়রানি ১টি, আত্মহত্যা ৮টি, আত্মহত্যার চেষ্টা ১টি, যৌতুকের নির্যাতন ৮টি, অন্যান্য ২টি ঘটনা ঘটে। জেলায় শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ১৬টি। নগরীতে চার ও নগরীর বাইরের নয়টি থানায় ১২ জন। এর মধ্যে দুর্গাপুরে পাঁচ, বাগমারায় দুই, গোদাগাড়ীতে দুই, তানোরে দুই ও বাঘায় একজন শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। হত্যার চেষ্টা এক, আত্মহত্যা এক, যৌন হয়রানি একটি, ধর্ষণ তিন, ধর্ষণের চেষ্টা পাঁচ, পারিবারিক সহিংসতা দুই ও অন্যান্য ঘটনায় তিনজন শিশু নির্যাতনের শিকার হয়।

উদ্ভাবনী মেলা শুরু : রাজশাহী কলেজে তিন দিনব্যাপী বিভাগীয় ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শুরু হয়েছে। মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ ও এটুআই প্রোগ্রামের সহায়তায় এ মেলার আয়োজন করে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার অফিস।

গতকাল রোববার বেলা ১১টায় রাজশাহী কলেজ মিলনায়তনে এ মেলার উদ্বোধন করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান। রাজশাহী অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসক এস.এম আব্দুল কাদের এবং রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন, রাজশাহী অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন ও আইসিটি) জাকির হোসাইন। এছাড়া রাজশাহীর বিভিন্ন স্কুল কলেজের প্রধান শিক্ষক, অধ্যক্ষ এবং শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তারা বলেন, সামগ্রিক উন্নয়নমুলক কর্মকা- ইন্টারনেটের মাধ্যমে জনগণের জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পোঁছে দিতে সারা দেশের তরুণ প্রজন্মকে কাজে লাগাতে নানা কর্মশালার আয়োজন করছে। তরুণ সমাজের মেধা, মনন ও সৃষ্টিশীলতার বিকাশ ঘটাতে উদ্ভাবনী মেলার আয়োজন করছে। এতে তরুণরা তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসতে পারছে। তিন দিনব্যাপী এ মেলা শেষ হবে আগামি ৩ এপ্রিল মঙ্গলবার। ৪ এপ্রিল থেকে একই স্থানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা শুরু হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ