ঢাকা, সোমবার 2 April 2018, ১৯ চৈত্র ১৪২৪, ১৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দিনাজপুরে বিসিকের ৩ দিনব্যাপী স্বাধীনতা মেলা

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, (দিনাজপুর): ক্ষুদ্র কুটির শিল্পকে বাজারজাত করার লক্ষ্যে এবং শিক্ষিত বেকারদের শিল্প উদ্যোক্তা সৃষ্টি করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে ৩ দিন ব্যাপী বিসিক স্বাধীনতা মেলা।
পুলহাট বিসিক কার্যালয় প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (সিবিক) দিনাজপুর আয়োজনে ৩ দিন ব্যাপী স্বাধীনতা মেলা ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। বিসিক দিনাজপুরের উপ-মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মোঃ গোলাম রব্বানী’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে মেলার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি দিনাজপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী শামীম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেবিএম কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ জিয়াউল হুদা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিকের উপ-ব্যবস্থাপক মোঃ সাজেদুল ইসলাম। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন তথ্য ও জরিপ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন তথ্য ও জরিপ কর্মকর্তা জুয়েল চন্দ্র সেন। বক্তারা বলেন চাকুরীর পিছনে না ঘুরে বিসিকের সহযোগিতায় প্রশিক্ষণ নিয়ে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প গড়ে তুলে সাবলম্বী হওয়া সম্ভব। আমাদের দেশীয় পণ্য উৎপাদনের মধ্য দিয়ে বিদেশী মুদ্রা অর্জন করা যায়। সভাপতির বক্তব্যে উপ-মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মোঃ গোলাম রব্বানী বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ দেশকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে বিসিক প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আমরা শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নপূরণ করতে আমাদের সার্বিক সহযোগিতায় ক্ষুদ্র কুটির শিল্পর মাধ্যমে বর্তমানে অনেক শিক্ষিক বেকার যুবক যুবতী এখন স্বনির্ভর হয়েছে। সভা শেষে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদ্বয় মেলার ১০টি স্টল পরিদর্শন করেন।
আলোকচিত্র প্রদর্শনী
মুক্তিযুদ্ধ ও শহীদ স্মৃতি সংগ্রহ কমিটি দিনাজপুরের আয়োজনে স্থানীয় লোকভবনে ৩ দিন ব্যাপী মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মৃতি দ্রব্যাদি ও মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু হয়েছে।
মুক্তিযুদ্ধ ও শহীদ স্মৃতি সংগ্রহ কমিটির সভাপতি ডাঃ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন হাবিপ্রবি দিনাজপুর এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম আবুল কাশেম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম. এ কাফী সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ দিনাজপুরের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা রিসার্চ ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব সৈয়দ নুরুল আমিন ছন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ