ঢাকা, সোমবার 2 April 2018, ১৯ চৈত্র ১৪২৪, ১৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ভেড়ামারায় ইজি বাইক চার্জিং স্টেশনে অভিনব পন্থায় বিদ্যুৎ চুরি ॥ দুই স্টেশনে জরিমানা ৪ লক্ষ টাকা

 

ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) সংবাদদাতা : বিশাল ইজিবাইক চার্জিং স্টেশন। এক সঙ্গে চার্জ হচ্ছে ৩৫টি ইজি বাইক। প্রতি ইজিবাইক বিদ্যুৎ খাচ্ছে কমপক্ষে ৮ ইউনিট। কিন্তু আর্শ্চয্যজনক ভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ মনিটরিং এর জন্য স্থাপিত মিটারে বিদ্যুৎ শো করছে না। অভিযানিক দল খুঁজে পান, বিতরণ লাইন হতে গ্রাহকের মিটার পর্যন্ত ৩ ফেজ সার্ভিস তারের নিউট্রল তার এবং মিটারের আর্থিং তার কেটে স্থাপনার অভ্যান্তরে কৃত্তিম ভাবে স্থাপন করা হয়েছে আর্থিং। এভাবে প্রতিদিন ৫ শতাধিক ইউনিট বিদ্যুৎ চুরি করছে ইজিবাইক প্রতিষ্ঠানের মালিক সাইফুল ইসলাম। কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় এভাবেই ইজি বাইক স্টেশনে অভিনব পন্থায় চুরি করা হচ্ছে বিদ্যুৎ। ভেড়ামারা আবাসিক প্রকৌশলী আলিউল আজমের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ২টি চার্জিং স্টেশনে এ চিত্র পাওয়া গেছে। এ সময় তাদেরকে ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা করে অভিযানিক দল।

সূত্র জানায়, প্রতিদিন হাজার হাজার ইউনিট বিদ্যুৎ চুরি হয়ে যাচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভেড়ামারা আবাসিক প্রকৌশলী আলিউল আজমের নেতৃত্বে উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিলন চন্দ্র সরকার এবং ইয়াসিন আলী সঙ্গীয় বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা অভিযান চালান ভেড়ামারার নওদাপাড়া এলাকার নিরাময় ক্লিনিকের সামনের একটি ইজি বাইক চার্জিং স্টেশনে। প্রতিষ্ঠানের মালিক সাইফুল ইসলাম। অভিনব পন্থায় তিনি কৃত্তিম ভাবে আর্থিং স্থাপন করে চুরি করছে বিদ্যুৎ। প্রতিদিন শতাধিক ইজিবাইক এখান থেকে চার্জিং করা হচ্ছে। গত ২৪ মার্চ রাত সাড়ে ১০টায় অভিযানের সময় ৩৫টি ইজিবাইক এক সঙ্গে চার্জিং অবস্থায় ছিল। এ সময় মিটারটি জব্দ করেন অভিযানিক দল। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিদ্যুৎ আইন ২০১৮ এর ধারা ৩২(২), ধারা ৩৩(১) এবং ৩৮(ঘ) ধারায় তাকে ২ লক্ষ ৪৭ হাজার ৬৫৫ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও বকেয়া বিদ্যুৎ বিল, রাজস্ব ফাঁকিসহ ৭ লক্ষ ৪২ হাজার ৮২৩ টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেয়া হয়। একই ভাবে বিদ্যুৎ চুরি করে ইজিবাইক চার্জ’র ব্যবসা করে আসচ্ছিল ভেড়ামারার দক্ষিণ রেলগেট এলাকার রাহাতুল ইসলাম ঝন্টু। ওই দিনই রাত সাড়ে ১১টায় অভিযান চালানো হয় তার ইজিবাইক চার্জিং স্টেশনে। এ সময় ১৭টি ইজিবাইক চার্জিং অবস্থায় ছিল। কিন্তু আর্শ্চয্যজনক ভাবে এখানেও বিদ্যুৎ মিটারে শো করছিল না। এ সময় তাল্লাশি চালিয়ে দেখা যায় বিতরণ লাইন হতে মিটার পর্যন্ত ৩ ফেজ সার্ভিস তারের নিউট্রল তার এবং মিটারের আর্থিং তার কেটে রাখা হয়েছে। এবং স্থাপনার অভ্যান্তরে কৃত্তিম ভাবে স্থাপন করা হয়েছে আর্থিং। এভাবে এখানেও প্রতিদিন চুরি করা হয় শত শত ইউনিট বিদ্যুৎ। অভিযানিক দল মিটারটি জব্দ করে জরিমানা করেন ১ লক্ষ ৭২ হাজার ৭৭২ টাকা। এছাড়াও বকেয়া বিল এবং রাজস্ব ফাঁকিসহ তাকে ৭ লক্ষ ৭ হাজার ৫০৬ টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেয়া হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ