ঢাকা, বুধবার 19 September 2018, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সারাদেশে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:প্রায় ১৩ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে সারাদেশে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।

এই পরীক্ষায় প্রশ্নপ্রত ফাঁস রোধে কড়াকড়ি ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে সরকার।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শুরু হয়েছে শিক্ষাজীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই বোর্ড পরীক্ষা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্রমতে, এবারের পরীক্ষায় মোট ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

৮ হাজার ৯৪৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আটটি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১০ লাখ ৯২ হাজার ৬০৭ জন, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১ লাখ ১২৭ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১ লাখ ১৭ হাজার ৭৫৪ জন শিক্ষার্থী ২ হাজার ৫৪১টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ৬ লাখ ৯২ হাজার ৭৩০ জন ছাত্র এবং ৬ লাখ ১৮ হাজার ৭২৭ জন ছাত্রী।

পাশাপাশি ২২৯ জন পরীক্ষার্থী ৭টি বিদেশি কেন্দ্র থেকে পরীক্ষায় অংশ নেবে।

শারীরিক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবেন। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন (অটিস্টিক এবং ডাউন সিনড্রোম বা সেরিব্রালপালসি আক্রান্ত) পরীক্ষার্থীরা অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় পাবেন।

প্রত্যেক কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা সচিবই কেবল মোবাইল ও ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারের অনুমতি পাবেন। এছাড়া পরীক্ষার সেট কোড নির্ধারণের এসএমএস পেয়ে তিনি প্রশ্নের প্যাকেট খোলার অনুমতি পাবেন।

এদিকে, প্রশ্ন ফাঁস রোধে আগের চেয়ে আরো কঠোর ব্যবস্থাগ্রহণ করেছে সরকার। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে সার্বক্ষণিকভাবে সারাদেশের এইচএসসি ও সমমানের সকল পরীক্ষা তদারকির ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এছাড়াও পরীক্ষা শুরুর আগে থেকেই দেশের সকল প্রকার কোচিং সেন্টারের কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পরীক্ষা শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত এসব সেন্টার বন্ধ থাকবে।

আগামী ১৩ মে পর্যন্ত চলবে লিখিত পরীক্ষা। ১৪ মে থেকে শুরু হয়ে ২৩ মে পর্যন্ত চলবে ব্যবহারিক পরীক্ষা ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ