ঢাকা, শনিবার 7 April 2018, ২৪ চৈত্র ১৪২৪, ১৯ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে আবারও ইহুদিদের হানা

 

৬ এপ্রিল, আল-জাজিরা : অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমো আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে আবারও হানা দিয়েছে ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীরা। ইহুদিদের পবিত্র দিন পাসওভার পালনে বৃহস্পতিবার অবৈধভাবে মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে তারা। ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা ওয়াফাকে উদ্ধৃত করে আল জাজিরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার প্রায় ৫০০ বসতি স্থাপনকারী মসজিদ প্রাঙ্গণে ঢুকে পড়ে। সেসময় ইসরায়েলি বিশেষ বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যরা তাদের সঙ্গে ছিল।

আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণটি একইসঙ্গে মুসলিম ও ইহুদিদের জন্য পবিত্র স্থান বলে বিবেচিত হয়। মুসলিমরা একে আল হারাম আল শরিফ নামে ডেকে থাকেন। আর ইহুদিরা এ স্থানটিকে ডাকেন টেম্পল মাউন্ট নামে। ১৯৬৭ সালে যখন ইসরায়েল এই এলাকায় প্রবেশাধিকার পায় তখন শুধু মুসলিমরাই আল-আকসায় নামাজ পড়তে পারতো। দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় প্রার্থনার সুযোগ পেত ইহুদিরা। মেনে চলতে হতো অনেক নিয়ম। বিগত ৫০ বছরে এই চিত্র অনেকটাই পাল্টে গেছে। ইসরায়েল এখন আল আকসার পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিতে অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত কয়েক বছর ধরে ইসরায়েলি রাজনীতিবিদ ও ইহুদি সংগঠনগুলোর মসজিদ প্রাঙ্গণ পরিদর্শনকে কেন্দ্র করে সহিংসতা হতে দেখা গেছে। ফিলিস্তিনিদের আশঙ্কা, ইসরায়েলি কট্টরপন্থীরা আল আকসা প্রাঙ্গণের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিতে চায়।

বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনের রিলিজিয়াস এনডাউমেন্ট অথরিটির মুখপাত্র ফিরাস আল দিব দাবি করেন, এদিন অন্তত ৪৯১ জন ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারী এবং বিশেষ বাহিনীর ১৩ কর্মকর্তা মসজিদ প্রাঙ্গণে হামলা করে। এ নিয়ে গত রবিবার থেকে আল আকসা মসজিদে অবৈধভাবে প্রবেশকারী ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের সংখ্যা ১,৭৩১ জনে দাঁড়িয়েছে।   প্রত্যক্ষদর্শীকে উদ্ধৃত করে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানায়, বৃহস্পতিবার ইসরায়েলি বাহিনীর সমর্থন নিয়ে শত শত বসতি স্থাপনকারীরা পশ্চিম তীরের একটি ধর্মীয় মাজারেও যায় এবং ফিলিস্তিনিদের ওপর আক্রমণ শুরু করে।  ওই এলাকায় থাকা তরুণ ফিলিস্তিনিরা আক্রমণ ঠেকানোর চেষ্টা করে। তবে ইসরায়েলি সেনারা টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট ও তাজা গুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালের আরব যুদ্ধের পর থেকে ইসরায়েল পূর্ব জেরুজালেম দখল করে রেখেছে। পূর্ব জেরুজালেমকে নিজেদের অবিভাজ্য রাজধানী বলে দাবি করে থাকে ইসরায়েল। অবশ্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি। ১৯৬৭ সালের পর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে ১শরও বেশি বসতি স্থাপন করেছে ইসরায়েল। পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে স্থাপিত প্রায় ১৪০টি বসতিতে ৬ লাখেরও ইসরায়েলি বসবাস করে। আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় এ বসতি স্থাপনকে অবৈধ বলে বিবেচনা করা হলেও ইসরায়েল তা মানতে চায় না। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ