ঢাকা, শনিবার 7 April 2018, ২৪ চৈত্র ১৪২৪, ১৯ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আজ শুরু হচ্ছে আইপিএল

আইপিএল-এর ১১তম আসরের পর্দা উঠছে আজ । বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এবারকার আসরের প্রথম ম্যাচ। লিগ পর্ব, কোয়ালিফাইয়ার ও এলিমিনেটরের লড়াই শেষে আগামী ২৭ মে ফাইনাল দিয়ে শেষ হবে টি-২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে আর্কষণীয় এই টুর্নামেন্ট। টুর্নামেন্টের উদ্বাধণী ও ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়মে। বাংলাদেশের বিশ্বসেরা অল রাউন্ডার সাকিব আল হাসান ও কাটার মাস্টার মোফিজুর রহমান খেলছেন দুই দলের হয়ে। মোস্তাফিজ খেলছেন চেন্নাইয়ের হয়ে। আর সাকিব খেলছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। তবে টুর্নামেন্ট শুরু আগেই অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে হারিয়ে ধাক্কা খেয়েছে হায়দ্রাবাদ। তবু দল নিয়ে আশাবাদী দলটি বোলিং কোচ মুত্তিয়া মুরালিধরন। তিনি জানিয়েছেন, সাকিব ও রশিদ খানের মতো স্পিনারদের নিয়ে দলটি শক্তিশালী বোলিং আক্রমণ সাজাতে পেরেছে। দুই আসর ধরেই হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ছিলেন ওয়ার্নার। কিন্তু কেপ টাউনে বল ট্যাম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নিষিদ্ধ হয়ে যান এক বছরের জন্য। ফলে অংশ নিতে পারছেন না আইপিএল-এর এবারের আসরে। ওয়ার্নারের বদলে হায়দ্রাবাদকে নেতৃত্ব দেবেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ওয়ার্নার ছাড়া হায়দ্রাবাদ কতটা সাফল্য পাবে, এমন প্রশ্নের জবাবে দলটির কোচ টম মুডি অবশ্য জানিয়েছেন, তাদের দলটি শক্তিশালী। ওয়ার্নার না থাকার প্রভাব পড়বে না দলে। এদিকে দলটি বোলিং কোচ মুরালিধরন বলেছেন, সাকিব ও রশিদকে নিয়ে তাদের দারুণ একটি স্পিনিং আক্রমণ আছে। সাকিবের ধারাবাহিকতা ও গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে জ্বলে ওঠার কথা উল্লেখ করে লঙ্কান এই লিজেন্ড বলেছেন, ‘চ্যাম্পিয়নশিপ জিততে হলে স্পিনারদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে হবে। সাকিব আল হাসান খুবই ধারাবাহিক বোলার। সে বাংলাদেশের হয়ে বেশ কয়েকটি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেছে। সে ‘ডেথ ওভার’ ও ‘পাওয়ার প্লে’তে বল করতে পারে। টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ৮০০ উইকেট শিকারি মুরালিধরন সাকিবের পাশাপাশি আফগানিস্তানের তরুণ তুর্কি রশিদ খানকে নিয়েও আশাবাদী। তার কথায়, ‘গতবছর আমরা তাকে শুধু পাওয়ার প্লেতে ব্যবহার করেছি। এ বছর আমরা সাকিবকেও পেয়েছি। রশিদ এখন মাঝের ওভারেও বল করতে পারবে এবং উইকেট নিতে পারবে।’ আইপিএল আকর্ষণীয় হলেও গত কয়েকটি বছর টুর্নামেন্টে বেশ কিছু কলংকজনক ঘটনা ঘটেছে। তার ওপর এবার নতুন করে দেখা দিয়েছে সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারী। গত মাসে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে তৃতীয় টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের দায়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তৎকালীন অধিনায়ক স্মিথ এবং ওয়ার্নারকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও এবারের আসরে এ দু’জনকে টুর্নামেন্টে অংশ নিতে দিচ্ছেনা। দুর্নীতির দায়ে দুই বছরের নিষিদ্ধাদেশ কাটিয়ে টুর্নামেন্টে ফিরছে স্মিথের রাজস্থান রয়্যালস। সুতরাং অধিনায়ক স্মিথকে না পাওয়াটাও দলের জন্য বড় এক ধাক্কা। বেটিং কেলেঙ্কারীতে জড়িয়ে দুই বছরের নিষিদ্ধাদেশ কাটিয়ে টুর্নামেন্টে ফিরছে চেন্নাই সুপার কিংসও। দুর্নীতি অভিযোগে বৃটেনে স্বেচ্ছা নির্বাসনে রয়েছেন আইপিএল প্রতিষ্ঠাতা ললিত মোদি। মামলা থাকায় দেশে ফিরতে অস্বীকার করেছেন তিনি। তবে নতুন করে কোন প্রকার বিতর্ক এড়িয়ে চলতে দৃঢ় প্রত্যয়ী ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। অস্ট্রেলিয়া দলের প্রতারণার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে বিসিসিআই এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আইপিএলে অংশ গ্রহণকারী খেলোয়াড়, ম্যাচ কর্মকর্তা সকলেই স্পিরিট অব গেম বজায়ে রেখে ও আচরণ বিধি মেনে চলবে বলে আশা করছে বিসিসিআই।’ কেপ টাউন টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের মাস্টারমাইন্ড অস্ট্রেলিয়ার ওয়ার্নারকেও বাদ দিয়েছে তার আইপিএল দল সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। জাকজমকপূর্ণ আইপিএল বিদেশী তারকা ক্রিকেটারদের কাছে আকর্ষণীয় একটি টুর্নামেন্ট। এমনটা মনে করেণ অস্ট্রেলিয়ার লেখক গিডিওন হেই। তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট ও খেলোয়াড়দের মধ্যে আইপিএল এখন সবকিছু। যদিও এটি কোন বিষয় নয়। জাতীয় সাফল্য এবং সম্মানের জন্য ভারতে আইপিএলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।’ এগারতম আসরের নিলামেও আইপিএলের চাহিদার মাত্রা ফুটে উঠে। গেল জানুয়ারিতে ব্যাঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত নিলামে আর্থিকভাবে নিজেদের দাপট দেখায় আইপিএল। ইংল্যান্ডের অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে ১ দশমিক ৯৬ মিলিয়ন ডলারে কিনে নেয় রাজস্থান রয়্যালস। ওয়ার্নার খেলতে না পারায় সানরাইজার্স হায়দারাবাদকে নেতৃত্ব দেবেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। গেল বছর ওয়ার্নারের নেতৃত্বেই আইপিএলের শিরোপা জিতেছিলো হায়দারাবাদ। এবারের আইপিএলে অংশ নেয়া আট দলের মধ্যে একমাত্র উইলিয়ামসনই বিদেশী অধিনায়ক। অন্য সাতটি দলের অধিনায়কত্ব করবেন ভারতীয় খেলোয়াড়রা। অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথ ও ওয়ার্নার না থাকালেও আসন্ন আইপিএল তার জৌলুস হারাবে না বলে মনে করেন ভারতের সাবেক টেস্ট খেলোয়াড় ও ধারাভাষ্যকার আকাশ চোপড়া। তিনি বলেন, ‘আইপিএল চমৎকার একটি টুর্নামেন্ট। এখানে কে আছে সেখানেই আপনি শুধু ফোকাস দেন। এখনো অনেক আকর্ষণ রয়েছে। জীবন চলে যায়, ক্রিকেটও চলে যাচ্ছে। একজনের না থাকার কারণেই অন্যজনের সুযোগ সৃষ্টি হয়।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ