ঢাকা, রোববার 8 April 2018, ২৫ চৈত্র ১৪২৪, ২০ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কলারোয়ার হাটবাজারে ভারতীয় টেন্ডুপাতার বিড়ি সরকার রাজস্ব বঞ্চিত

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) উপজেলা সংবাদদাতা: সীমান্ত পথে পাচার হয়ে আসা ভারতীয় টেন্ডুপাতার বিড়ি বিক্রি হচ্ছে কলারোয়ার হাট বাজারে। এতে সরকার লাখ লাখ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। জানা গেছে, ভারত থেকে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ রোধে সীমান্ত সংলগ্ন গ্রামের কিছু ব্যক্তিকে রাতে বিজিবিকে সহায়তার জন্য নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে বহু অসাধু ব্যক্তি সহায়তার নামে সারা রাত সীমান্তে অবস্থান নিয়ে টাকার বিনিময়ে চোরাচালানে লিপ্ত হয়েছে। কলারোয়ার কেড়াগাছির চারাবাড়ি থেকে শুরু করে চান্দুড়িয়ার গাড়ালবাড়ি পর্যন্ত সীমান্তে সুযোগ বুঝে তারা চোরাচালনী পন্য আনা নেওয়ার কাজ করছে। এরমধ্যে ভারতীয় টে-ুপাতার বিড়ি পাচার করে আনা হচ্ছে। বিক্রির জন্য এই বিড়ি কলারোয়া, পার্শ্ববর্তী মনিরামপুর, কেশবপুর ও তালা উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারের ব্যবসায়ীদের কাছে পৌছে দেওয়া হচ্ছে। ভারতীয় টে-ুপাতার বিড়ির মধ্যে ”ঝর্না বিড়ি, জয়বিড়ি, বনগা বিড়ি, পোদ্দার বিড়ি, বাঘমার্কা বিড়ি, হরিণ মার্কা বিড়ি অন্যতম। কলারোয়ায় ২৫টির এক প্যাকেট দেশীয় কাগজের বিড়ি বিক্রি হচ্ছে ১ টাকায়। আর ভারতীয় ২৫টি টেন্ডুপাতার বিড়ি বিক্রি হচ্ছে স্থান কাল পাত্র ভেদে ১২ টাকা থেকে ১৮ টাকায়। ক্রমান্বয়ে ভারতীয় বিড়ি বিক্রি বৃদ্ধি পাচ্ছে। চোরাই পথে আসা ভারতীয় বিড়ি থেকে সরকার লাখ লাখ টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে।          

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ