ঢাকা, রোববার 8 April 2018, ২৫ চৈত্র ১৪২৪, ২০ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সব দল অংশ না নিলে তা ‘ভালো নির্বাচন’ হবে না -সিইসি

 

স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সব দল অংশ না নিলে তা ‘ভালো নির্বাচন’ হবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। বিএনপি ও সমমনা দলগুলো দশম সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলেও একাদশ সংসদে নির্বাচনে তার পুনরাবৃত্তি হবে না বলে আশা রাখেন কে এম নূরুল হুদা।

গতকাল শনিবার নির্বাচন বিষয়ক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণের সমাপনী দিনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি। এসময় তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবুয়াল হোসেন ও পিআইবি মহাপরিচালক শাহ আলমগীর উপস্থিত ছিলেন। আরএফইডির সভাপতি সোমা ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হক চৌধুরী শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন। ৫-৭ এপ্রিল পর্যন্ত প্রশিক্ষণে সাবেক সিইসি এটিএম শামসুল হুদা, সাবেক সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ, পিএসসি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিকসহ নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন অধিবেশনে বক্তব্য দেন।

এ বছরের নভেম্বর থেকে আগামী বছরের জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। তা অংশগ্রহণমূলক করার বিষয়ে জোর দিচ্ছে সব মহল। সিইসি বলেন, নির্বাচন করাই আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা আশা করি, সব দলই আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে। সব দল না এলে তা ভালো নির্বাচন হবে না।

দশম সংসদ নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি রোধ করতে ইসির কি ভূমিকা থাকবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্বাচন নিরপেক্ষভাবে করব সে ব্যাপারে কমিশনের দৃঢ়তা রয়েছে। রাজনৈতিক দলগুলো কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে কথাবার্তা কম বলছে।

নির্বাচনের সময় সংসদ বহাল থাকলে আচরণবিধি সংশোধন করে সাংসদদের ক্ষমতা খর্ব করা হবে কিনা জানতে চাইলে কে এম নূরুল হুদা বলেন, এটা অবশ্যই চিন্তা করা দরকার। তাদের রেখে নির্বাচন করতে হলে আচরণবিধিতে কিছু পরিবর্তন আনা দরকার। এটা নিয়ে আমরা চিন্তা করে দেখব।

বিদ্যমান পরিস্থিতিতে নির্বাচনে ‘ লেভেল  প্লেইং ফিল্ড’ তৈরির বিষয়ে সীমাবদ্ধতা রয়েছে বলে সিইসি জানান। তিনি বলেন, কিছু কিছু জিনিস আছে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই। সরকারের কাঠামো কেমন হবে, নির্বাচনের সময় সরকার কি রকম- এগুলো সম্পূর্ণ সরকারের বিষয়। নির্বাচন কমিশনের বিষয় না। কি রকম সরকার হবে না হবে সেটা নিয়ে আমরা কিছু করতে পারব না।

নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিষয়ে সিইসি বলেন, রংপুরে আমরা চেষ্টা করেছি। গাজীপুর ও খুলনায় আংশিক যতটা পারি আমরা সেখানেও আমরা মানুষের কাছে নিয়ে যাব। সেটা যদি গ্রহণযোগ্য হয় তখন ধীরে ধীরে এটাকে সংস্কার করা হবে। তবে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে তিনি জানান।

নির্বাচন কমিশন বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন রিপোর্টার্স ফোরাম ফর ইলেকশন এ্যান্ড ডেমোক্রেসির (আরএফইডি) উদ্যোগে বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট (পিআইবি) তিন দিনের এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করে। সমাপনী অনুষ্ঠানের ৩৫ জন সাংবাদিকের হাতে সনদ তুলে দেন সিইসি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ