ঢাকা, সোমবার 9 April 2018, ২৬ চৈত্র ১৪২৪, ২১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সমৃদ্ধ দেশ গড়তে আদর্শিক নেতৃত্ব তৈরী করতে হবে -শিবির সভাপতি

গতকাল রোববার বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পশ্চিমের সদস্য শিক্ষাশিবিরে বক্তব্য রাখেন শিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত -সংগ্রাম

 

বাংলাদেশে ইসলামি ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, বর্তমান নেতৃত্ব দেশের সমস্যা সমাধান ও জাতির প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। রাষ্ট্রের প্রতিটি শ্রেণী পেশার মানুষ অশান্তিতে দিন যাপন করছে। এর মূল কারণ নীতিহীন অদক্ষ নেতৃত্ব। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও রক্ষায় প্রয়োজন আদর্শিক নেতৃত্ব। তাই সমৃদ্ধ দেশ গড়তে আদর্শিক নেতৃত্ব তৈরি করতে হবে।

গতকাল রোববার রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী পশ্চিম শাখার সদস্য শিক্ষা শিবিরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহানগরী সভাপতি আব্দুল আলিমের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি যোবাইর হোসেন রাজনের পরিচালনায় শিক্ষা শিবিরে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ড.রেজাউল করিম, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা: ফখরুদ্দিন মানিক।

শিবির সভাপতি বলেন, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়া জাতির বহুদিনের প্রত্যাশা। কিন্তু যুগের পর যুগ পেরিয়ে গেলেও সেই প্রত্যাশা আজও পূরণ হয়নি। দেশ আজ চরমভাবে সৎ ও যোগ্য নেতৃত্বের সংকটে ভুগছে। রাষ্ট্র পরিচালিত হচ্ছে অদক্ষ ও অসৎ ব্যক্তিদের দ্বারা। অসৎ নেতৃত্বের কারণে আজ দেশের স্বাধীনতা- সার্বভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়েছে। মেধাবী শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থা জাতিকে কাক্সিক্ষত নাগরিক উপহার দিতে পারছে না। ফলে সমৃদ্ধ বাংলার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেছে। মূলত প্রত্যাশিত বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজন ইসলামী মূল্যবোধের ভিত্তিতে আগামী প্রজন্মকে গঠন করা। যাদের হাতে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠবে। জাতির বহু দিনের আকাক্সক্ষা পূরণ করবে। ছাত্রশিবির সেই প্রচেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছে। এ সংগঠনের অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দিতে স্বার্থান্বেষীরা নেতাকর্মীদের যেমন জুলুম নির্যাতন করছে তেমনি তথ্য, প্রযুক্তি ও দলীয় মিডিয়া ব্যবহার করে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তাদের এ অপচেষ্টা সব সময় ব্যর্থ হয়েছে। ছাত্রশিবির শত বাধা বিপত্তি মোকাবেলা করে দেশ ও ইসলাম রক্ষার জন্য নিজেদের যোগ্য হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। সময়ের ব্যবধানে আজ প্রমাণ হয়েছে কোনো প্রতিকূলতাই আমাদের অগ্রযাত্রাকে রুখে দেয়ার ক্ষমতা রাখে না।

তিনি বলেন, মানুষের সার্বিক কল্যাণের জন্য প্রয়োজন ইসলামী সমাজ প্রতিষ্ঠা। রাসূল (সাঃ) যে রাষ্ট্র গঠন করেছিলেন তাই আমাদের আদর্শ। শুধু মাত্র রাসূল স: এর আদর্শে নৈতিকতা ও যোগ্যতা সম্পন্ন লোক তৈরি করে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার কারিগরে পরিণত করা সম্ভব। ইতিহাস স্বাক্ষী মহানবী সা. এর আদর্শের কাছে সকল অপকর্ম হার মেনেছে। অন্ধকারাচ্ছন্ন জাতি আলোর বর্তিকায় পরিণত হয়েছে। আর সেই আদর্শ বাস্তবায়নের লক্ষ্যেই ছাত্রশিবির গঠিত হয়েছে। কিন্তু আমাদের যাত্রা এখনো লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি। নব্য জাহেলিয়াতের করাল গ্রাস থেকে জাতিকে রক্ষায় রাসূল-এর আদর্শ বাস্তবায়নে সদস্যদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ