ঢাকা, সোমবার 9 April 2018, ২৬ চৈত্র ১৪২৪, ২১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় ঘাটতি কোথায়  প্রশ্ন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর 

 

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় কোন জায়গায় গাফিলতি হচ্ছে বিএনপির কাছে তা জানতে চেয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। গতকাল রোববার ঢাকার তেজগাঁওয়ে রেজিস্ট্রি ভবনে দলিল লেখক সমিতির এক আলোচনায় মন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ প্রশ্ন রাখেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জেল কোড অনুযায়ী খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড যে পরামর্শ দিয়েছে সেই অনুযায়ী চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় কোনো ঘাটতি নেই।’

গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে থাকা খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে আলোচনা তৈরি হয়েছে গত ২৮ মার্চ। আর পরদিন কারাগারে ঢাকার ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে একটি দল তাকে দেখে আসে। পরে ১ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার জন চিকিৎসককে দিয়ে গঠন করা হয় মেডিকেল বোর্ড। সেদিনই তারা বেশ কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর, আর তাদের পরামর্শে ৭ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আনা হয় বিএনপি নেত্রীকে। কিছু এক্সরে করানোর পর সেদিনিই কারাগারে নেয়া হয় তাকে।

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করছেন, তাদের নেত্রীর সুচিকিৎসা হচ্ছে না কারাগারে। আর এ জন্য খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার দাবি তুলছেন নেতারা।

সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আনার সমালোচনাতেও মুখর বিএনপি নেতারা। তাদের দাবি, খালেদা জিয়াকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার নামে হয়রানি করা হয়েছে।

বিএনপির অভিযোগ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) চিকিৎসায় ঘাটতি কোথায় সেটাই তো খুঁজে পাচ্ছি না।’ বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে হলে শেখ হাসিনাই একমাত্র ভরসা বলেও মনে করেন মন্ত্রী। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে সারা বিশ্ব সমীহ করছে। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনা।’ ‘দেশকে যদি আবার অন্ধকারে নিমজ্জিত করতে না চান, আবার দুর্নীতিতে ডোবাতে না চান তাহলে নৌকার বিকল্প নেই, শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।’

দলিল লেখকদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশ, এখানে যৌক্তিক সকল দাবি মেনে নেওয়া হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ