ঢাকা, সোমবার 9 April 2018, ২৬ চৈত্র ১৪২৪, ২১ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইউনাইটেডের কাছে হেরে অপেক্ষা বাড়ল সিটির

স্পোর্টস ডেস্ক : জিতলেই সবচেয়ে বেশি ম্যাচ হাতে রেখে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা ঘরে তোলার রেকর্ড গড়তো ম্যানচেস্টার সিটি। নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধে দুই গোলে এগিয়ে গিয়ে সে সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল পেপ গুয়ার্দিওলার দল। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে পগবার জোড়া গোলে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড রোমাঞ্চকর এক জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে। 

শনিবার ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের ৩-২ গোলে হারিয়েছে জোসে মরিনিয়োর দল। চলতি মৌসুমে দ্বিতীয় হারের স্বাদ পাওয়া সিটির পয়েন্ট ৩২ ম্যাচে ৮৪। ১৩ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। 

২২তম মিনিটে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার বের্নার্দো সিলভার শট রুখে দেন ইউনাইটেড গোলরক্ষক।কিছক্ষণ পর ছয় মিনিটের ব্যবধানে দুবার বল জালে পাঠিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় সিটি।২৫তম মিনিটে লেরয় সানের কর্নারে জোরালো হেডে দলকে এগিয়ে দেন বেলজিয়ামের ডিফেল্ডার ভিনসেন্ট কোম্পানি। আর ৩১তম মিনিটে রাহিম স্টার্লিংয়ের পাস ডি-বক্সে পেয়ে শরীরটাকে ঘুরিয়ে দারুণ কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন জার্মান মিডফিল্ডার ইলকাই গিনদোয়ান। দুই গোল খেয়ে খেই হারিয়ে ফেলে অতিথিরা। খেলার ধারার বিপরীতে দুই মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। ৫৩তম মিনিটে ডান দিক থেকে আলেক্সিস সানচেসের বাড়ানো বল ডি-বক্সে বুক দিয়ে সামনে বাড়ান আন্দের এররেরা। আর ডান পায়ের শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন পগবা। ৫৫তম মিনিটে সানচেসের উঁচু করে বাড়ানো বল ছয়গজী বক্সের বাইরে থেকে হেডে সমতা ফেরান ফরাসি এই মিডফিল্ডার। আর ৬৯তম মিনিটে চিলির ফরোয়ার্ড সানচেসের পাস ডি-বক্সে পেয়ে জয়সূচক গোলটি করেন ক্রিস স্মলিং। ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে শেষ দিকে সিলভা ও গিনদোয়ানকে তুলে নিয়ে দুই ফরোয়ার্ড জেসুস ও আগুয়েরোকে নামান কোচ। কিন্তু কেউই কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে পারেননি। ফলে ইংলিশ ফুটবলের শীর্ষ এই প্রতিযোগিতায় ৪৯০ দিন পর ঘরের মাঠে হারের স্বাদ পায় সিটি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ