ঢাকা, মঙ্গলবার 10 April 2018, ২৭ চৈত্র ১৪২৪, ২২ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নবীগঞ্জে যুবলীগের কমিটি গঠন নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ॥ অর্ধশতাধিক আহত

হবিগঞ্জ সংবাদদাতা : নবীগঞ্জ উপজেলার বড় ভাকৈর (পশ্চিম) ইউনিয়নের যুবলীগের ওয়ার্ড কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে ও পূর্ব আক্রোশের জের ধরে গতকাল সোমবার সকালে স্থানীয় আমড়াখাইর গ্রামে বাড়িঘরে হামলার, ভাংচুর ও ভয়াবহ সংঘষের্র ঘটনা সংগঠিত হয়েছে ।

এতে উভয় পক্ষের মহিলাসহ অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়েছেন । আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ৮ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় । অন্যান্য আহতদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও প্রাথমিক চকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। আবারো যে কোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকায় রয়েছেন স্থানীয় লোকজন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত  রোববার উপজেলার বড় ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সুকেল দাশকে সভাপতি ও মতলিব মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ইউনিয়ন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সবাই ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা রনি তালুকদার গ্রুপের লোক। কমিটি ঘোষণা করেন ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়নের কমিটি গঠনের দায়িত্বে থাকা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাব্বি আহমেদ চৌধুরী মাক্কু। কমিটি ঘোষণার  জের ধরে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগরে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসলাম উদ্দিনের গ্রুপের লোকেরা অনেকেই পদবঞ্চিত হওয়ার ফলে তাদের মধ্যে উত্তেজনা  সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে ওই দিনই সন্ধ্যার পর উভয় পক্ষের লোকজনরে মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সকালে উভয় পক্ষরে লোকজন  দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী সংর্ঘষে ইট পাটকলে নিক্ষেপ করার কারণে অন্তত ১০-১৫টি বাড়িঘর ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় মহিলাসহ উভয় পক্ষের অন্তত অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয় ।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। 

পরে আহতদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুরুতর আহত অবস্থায় রাখাল বৈষনব (৪০), নিখিল দাশ (৫৫), হলো দাশ (৫৫),  খোকন মিয়া (১৯), সাইফুল ইসলাম (২৮) সহ ৮জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। অন্যান্য আহতদের উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

এ ব্যাপারে বড় ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গৌতুম কুমার দাশ জানান, যুবলীগের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাড়িঘরে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা সংগঠিত হয়েছে। 

এ ব্যাপারে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ফজলুল হক চৌধুরী সেলিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কমিটি ঘোষণার জের ধরে সংঘর্ষের সতত্যা নিশ্চিত করে তিনি বলেন, আমাদের যুবলীগের বর্ধিত সভায় বড় ভাকৈর (পশ্চিম) ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড কমিটি ঘোষণা না করার সিদ্বান্ত গৃহিত হয়। এর চেয়ে বেশি কিছু আমি জানিনা। 

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি এস.এম আতাউর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

৪র্থ বারের মতো হবিগঞ্জে শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক হলেন এসআই মমিনুল 

এবারও হবিগঞ্জ জেলায় ৪র্থ বারের মতো শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শকের পুরস্কার পেলেন হবিগঞ্জের মাধবপুর থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) মমিনুল ইসলাম। আজ সোমবার সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনে পুলিশের মাসিক কল্যাণসভায় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার বিধান ত্রিপুরা বিপিএম, পিপিএম তার হাতে এ পুরস্কার ও সম্মাননা তুলে দেন। এসআই মমিনুল ইসলাম মাধবপুর থানায় কর্মরত থাকাবস্থায় অপরাধ দমন, অপরাধী শনাক্ত, সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামীদের গ্রেফতার ও সার্বিক আইন শৃঙ্খলা উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় তিনি এ পুরস্কার লাভ করেন। সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আ.স.ম শামসুর রহমান ভূঁইয়া সহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এরআগে তিনি সিলেট রেঞ্জে ২১ বার শ্রেষ্ঠ এবং জাতীয় পর্যায়ে ২ বার আইজিপি ব্যাজ পুরস্কারে ভূষিত হন। 

আগুন দিয়ে নাশকতা 

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামে আগুন দিয়ে এক কৃষকের বসত ভিটা পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মির্জাপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক নুরুল ইসলাম জানান, গত রোববার রাতে দুর্বৃত্তরা বাহির থেকে তার বসত ভিটায় আগুন ধরিয়ে দেয়। মুহূর্তের মধ্যেই বসত ঘর পুড়ে ৩/৪লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মির্জাপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আতিক উল¬াহ মিয়া জানান, ধারণা করা হচ্ছে মাদকাসক্ত কিছু যুবক এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। এর আগেও ওই গ্রামের ৩টি বাড়িতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। রাতের অন্ধকারে বাড়িতে আগুন লাগার ঘটনায় গ্রামে এখন আগুন আতংক বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে গ্রামের মুরুব্বীরা সভা করে পাহাড়ার ব্যবস্থা করা করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ