ঢাকা, মঙ্গলবার 10 April 2018, ২৭ চৈত্র ১৪২৪, ২২ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কোটা পদ্ধতি সংস্কারে ছাত্রদের আন্দোলনে বিএনপি একমত  ------আমান উল্লা আমান

 

 

হবিগঞ্জ সংবাদদাতা : কোটা পদ্ধতি সংস্কারে দেশব্যাপী ছাত্রদের আন্দোলনের সঙ্গে বিএনপি একমত পোষণ করে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান। তিনি বলেন, অবশ্যই ছাত্রদের যৌক্তিক দাবি মেনে নেয়া উচিত। তাদের ন্যায্য অধিকার দেয়া উচিত।

গতকাল সোমবার দুপুরে হবিগঞ্জে জেলা বিএনপি আয়োজিত কর্মী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, আদালতকে সরকার নিজের কব্জায় রেখেছে। তারা যা বলে আদালত তাই করে। একমাত্র রাজপথের আন্দোলন ছাড়া শুধু বাংলাদেশে নয়, আন্তর্জাতিকভাবে কোনো স্বৈরাচারের পতন হয়নি। আজকে নির্বাচন কমিশনও এ সরকারের আজ্ঞাবহ। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনে সেনা মোতয়েনের কথা বললেও সরকার বলে এটি কমিশনের এখতিয়ারে নেই।

তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া মুক্ত হওয়া ছাড়া বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারি করেছেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক মন্ত্রী আমান উল্লাহ আমান। সরকার যা বলে নির্বাচন কমিশন তাই শুনে। সেনাবাহিনী মোতায়েন নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বললেন সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো ইশতেহার নেই। কিন্তু বাংলাদেশে নির্বাচন হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং সেই নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সরকারের হাতে কোর্ট জিম্মি, সরকার চাচ্ছে দায়সারা নির্বাচন দিয়ে পূর্বের ন্যায় আবারও অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসতে। তা জনগণ প্রত্যাখ্যান করছে। আগামীতে এভাবে একতরফা নির্বাচন মেনে নেয়া হবে না। সবাইকে আগামী আন্দোলনে একনিষ্ঠভাবে সক্রিয় থাকতে। শাহবাগে কোটা পদ্ধতি নিয়ে আন্দোলনকারীদের প্রতি সমর্থন জানান এবং তাদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা জানান। সব দল সভা-সমাবেশ করছে কিন্তু সরকার বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করতে দেয় না। এর মানে সরকার বিএনপির জনপ্রিয়তাকে ভয় পায়। কারণ জনগণ বিএনপির সাথে আছে।

বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, অন্যায় দ- বাতিল, অবিলম্বে দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে আমান উল্লাহ আমান বলেন দেশে এখন ক্রান্তিকাল চলছে। খুন, গুম, ধর্ষণ, হামলা, ব্যাংক ডাকাতি, উন্নয়নের নামে লুটপাট, প্রশ্নপত্র ফাঁস ও শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস, বিচার বিভাগ দখল ও সাধারণ মানুষের বাক স্বাধীনতা হরণ করেছে।  অতীতের সব জুলুমবাজ ও জালিম সরকারে সব কর্মকা- হার মেনেছে এই সরকারে আমলে। দেশে কোথাও বিএনপির সভা-সমাবেশ করতে পারে না পুলিশী বাধার কারণে। শত শত মিথ্যা মামলায় নাজেহাল করা হচ্ছে বিএনপির নেতাকর্মীদের। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে নির্বাচনের স্বপ্ন পূরণ হবে না। সারা দেশ আজ কারাগারে পরিণত হয়েছে। গণতন্ত্র অবরুদ্ধ। মানবাধীকার ভূ-লুন্ঠিত। তিনি বলেন সংগ্রাম ও আন্দোলন ছাড়া কোনো দিন ও সৈরশাসকের পতন ঘটানো সম্ভব হয়নি। আন্দোলনের মাধ্যমে সৈরশাসকে উঠাতে হবে।

এ সময় তিনি নেতাকর্মীদের আন্দোলনের সাথে থাকার কথা বললে উপস্থিত সকল নেতাকর্মীরা হাত উচিয়ে তার সমর্থন জানান।

 জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র আলহাজ্ব জি কে গউছের পরিচালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এডভোকেট খালেকুজ্জামান চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন- সাবেক এমপি ও বিএনপির কেন্দ্রী নেত্রী শাম্মি আক্তার শিফা, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এডভোকেট মঞ্জুর উদ্দিন আহমেদ শাহিন,  সৈয়দ শাহ জাহান প্রমুখ। এছাড়াও বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ