ঢাকা, মঙ্গলবার 10 April 2018, ২৭ চৈত্র ১৪২৪, ২২ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মিরাজ নবুওয়াতী জীবনের বিস্ময়কর ঘটনা 

বায়তুশ শরফ মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা মামুনুর রশীদ নূরী বলেছেন, রাসূলের (সঃ) মিরাজ তাঁর নবুওয়াতী জীবনের এক বিস্বয়কর ঘটনা ও ইসলামী সভ্যতা সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং একটি অন্যতম শ্রেষ্ঠ মো’জিজা। তিনি বলেন মিরাজকে পাশ্চাত্যের এক শ্রেণির বুদ্ধিজীবী তাদের জ্ঞান সীমাবদ্ধতার কারণে কাল্পনিক বলে চালিয়ে দিতে চাইলেও সেটা যে, রাসূলে কারিম (সঃ) এর দৈহিক ছিল তা কুরআন হাদীসের দলীল দ্বারা স্বীকৃত। এবং আল্লাহ তায়ালা তাঁর রাসূলের মাধ্যমে একটি আদর্শ কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য মিরাজের ঐতিহাসিক ১৪ দফা মূলনীতি যে রূপরেখা দিয়েছেন তা আজ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যুগেও সর্বমহলে প্রসংশিত।

মাওলানা নূরী বলেন, আজ মুসলিম বিশ্বে উম্মাহর ওপর চলছে এক কঠিন পরীক্ষা এবং প্রতিনিয়ত বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলে উম্মাহর রক্তক্ষরণ বেড়েই চলেছে। সম্প্রতি আফগানিস্তানে নির্বিচারে শতাধিক কুরআনে হাফেজকে হত্যা বিশ্ব বিবেককেও নাড়া দিয়েছে। তিনি বলেন মুসলিম উম্মাহর মানব সম্পদ ও খনিজ ওয়েলথ সবটাই ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এসে উপনীত। অন্যদিকে ইসলামকে সন্ত্রাসবাদ ও মুসলমানদের জঙ্গিবাদ আখ্যা দিয়ে পুরো মানবতাকে বিভ্রান্তির জালে আটকিয়ে রেখেছে। প্রধান মুফাসিসর আরো বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের ক্ষতিকর ব্যাধি থেকে জাতিকে বাঁচাতে হলে শারিরিক শিক্ষার নামে যৌন বিষয়ক শিক্ষাদান, মুক্ত চিন্তার নামে ধর্মহীনতার বড়ি গিলানোর অপচেষ্ঠা এবং নারী পুরুষের অবাধ মেলামেশার সংস্কৃতি নবপ্রজন্মে প্রেকটিস করার প্রকাশ মহড়া বন্ধ করে দিয়ে এবং মিরাজের ঐতিহাসিক ১৪ দফা মূলনীতির আলোকে রাষ্ট্র পরিচালনা করা হলে গজিয়ে উঠা ধর্মহীন প্রত্যয়ে লালিত সমাজ ও রাষ্ট্র বিরোধী যাবতীয় আবর্জনা ভাসিয়ে যেতে বাধ্য।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ