ঢাকা, বুধবার 11 April 2018, ২৮ চৈত্র ১৪২৪, ২৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি চালু থাকায়  মেধার মূল্যায়ন হচ্ছে না -ডাঃ শফিকুর রহমান

 

সরকারি চাকরিতে বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে দেশের মেধাবী তরুণ ছাত্র সমাজের ন্যায়সংগত দাবি মেনে নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান বলেন, সরকারি চাকরিতে বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে দেশের মেধাবী তরুণ ছাত্র সমাজ যে আন্দোলন করছে তা ন্যায় সংগত। অবিলম্বে তাদের এ ন্যায়সংগত দাবি সরকারের মেনে নেয়া উচিত। ছাত্র সমাজের দাবি মেনে নেয়ার পরিবর্তে তাদের উপর আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হামলা এবং গ্রেফতার নির্যাতনের আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। 

গতকাল মঙ্গলবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, দেশের মেধাবী তরুণ ছাত্র সমাজ দীর্ঘদিন থেকেই চাকরিতে বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। শুধু তরুণ ছাত্র সমাজই নয়, দেশের শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী এবং রাজনীতিবিদগণও বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি যুগপোযোগী সংস্কারের পক্ষে অভিমত দিয়েছেন। কিন্তু সরকার তাদের মতামতের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন করেই চলেছে। যে কারণে দেশের মেধাবী তরুণ ছাত্র সমাজ বৈষম্যমূলক এই কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে চূড়ান্ত আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, ছাত্রদের দাবি আজ জাতীয় দাবিতে পরিণত হয়েছে। বৈষম্যমূলক কোটা পদ্ধতি চালু থাকায় সত্যিকারভাবে মেধার কোন মূল্যায়ন হচ্ছে না। দেশকে সত্যিকারভাবে গড়ে তুলতে হলে মেধার যথার্থ মূল্যায়ন করতে হবে। বর্তমানে চাকরিতে ৫৬ ভাগ শিক্ষার্থী শুধুমাত্র কোটার ভিত্তিতেই নিয়োগ পাচ্ছে যা পৃথিবীর কোন দেশেই নেই। 

একগুয়েমী পরিহার করে অবিলম্বে আন্দোলনকারীদের সকল দাবি মেনে নেয়ার জন্য তিনি সরকারের নিকট জোর দাবি জানান।  

আর্কাইভ