ঢাকা, বুধবার 11 April 2018, ২৮ চৈত্র ১৪২৪, ২৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সরকারের এজেন্টরাই ভিসির বাসভবনে হামলা চালিয়েছে  --- রিজভী

 

স্টাফ রিপোর্টার: কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন কর্মসূচিকে ভিন্ন খাতে নিতে সরকারি এজেন্টদের দিয়ে ভিসির বাসভবনে হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপির নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, জনমনে প্রশ্ন উঠেছে শান্তিপূর্ণ এ আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে সরকারের এজেন্টদের দিয়ে হামলা করা হয়েছে কিনা। আওয়ামী লীগের এক কেন্দ্রীয় নেতা ক্যাম্পাসে প্রবেশের ১০ মিনিটের মাথায় এ হামলা সংঘটিত হয়। হামলার সময় সেখানে বিপুলসংখ্যক পুলিশ উপস্থিত ছিল। তা থাকা সত্ত্বেও দুই ঘণ্টাব্যাপী হামলা চলাকালে পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করেনি। এ হামলা পরিকল্পিত।

তিনি বলেন, ঢাবি ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দখলে ছিল। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী ছাড়া আর কেউ এ ধরনের হামলা ও ভাঙচুর করার সাহস রাখে কি? তিনি আরও বলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলা ১৯৭১ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে হানাদার বাহিনীর হামলাকে স্মরণ করিয়ে দেয়। ছাত্রছাত্রীদের ওপর গুলী, টিয়ারশেল দিয়ে যে নির্যাতন করা হয়েছে এবং শত শত ছাত্রছাত্রী রক্তাক্ত অবস্থায় যেভাবে কাতরাচ্ছিল, সেটা দেখে সাধারণ মানুষের মধ্যে নিন্দার ঝড় চলছে।

রিজভী আহমেদ বলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীরা দীর্ঘ দিন ধরে আন্দোলন করে আসছে। দাবি মানার জন্য বারবার সরকারের কাছে আহ্বান জানানোর পরও সরকারের পক্ষ থেকে কোন কর্ণপাত করা হচ্ছে না। গতকালও আওয়ামী লীগের মন্ত্রী ও নেতারা যে বৈঠক করেছেন তাও লোক দেখানো। রিজভী বলেন,  বৈঠকে তারা কী বললেন? একমাস পর বিষয়টি দেখবেন। কিন্তু আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি না দিয়ে বললেন, কারা ভাঙচুর ও হামলা করেছে, তাদের পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ছাড়া হবে। তিনি আরও বলেন, গুলী, হামলা, ভাঙচুর তো করেছে ছাত্রলীগ। গণমাধ্যমে সেসব খবর বেরিয়েছে, ছবি প্রকাশ হয়েছে তাদের ধরছেন না কেন? 

রিজভী বলেন, সোমবার অর্থমন্ত্রী বলেছেন, দেশে সৎ লোকের সংখ্যা বাড়ছে। ক্ষমতাসীনদের দেশ পরিচালনার সাবজেক্ট জনগণ নয়, তাদের সাবজেক্ট জনগণের সাথে মশকরা করা। এই অর্থমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় ব্যাংক থেকে টাকা লুট হওয়াকে আশকারা দিয়ে বলেছিলেন, চার হাজার কোটি টাকা লোপাট হওয়া কোন দুর্নীতি নয়। এখনও সেই কথা মানুষের স্মৃতি থেকে বাসি হয়ে যায়নি। দুর্নীতির মহাযজ্ঞে হাইওয়ে খুলে দিয়েছেন দেশের অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমরা এর আগে বলেছিলাম, জিডিপির প্রবৃদ্ধি নিয়ে সরকারের ঘোষণা চাপাবাজি। গতকাল বিশ্বব্যাংক বলেছে, দেশে বিনিয়োগ স্থবির, রফতানি আয় কমছে, সকল খাতে প্রবৃদ্ধিও নেতিবাচক। তাহলে জিডিপি বাড়লো কীভাবে, এ প্রশ্নও করেছে বিশ্বব্যাংক।

খালেদা জিয়াকে ব্যক্তিগত চিকিৎসকের চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করাসহ নানাভাবে কষ্ট দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, সরকারি মেডিকেল বোর্ড খালেদা জিয়াকে অর্থোপেডিক বেড (বিছানা) দেওয়ার সুপারিশ করলেও সেটি এখন পর্যন্ত সরবরাহ করা হয়নি। হাইকোর্ট জামিন দেওয়ার পরও খালেদা জিয়াকে কষ্ট দিতে সরকারের নির্দেশে জামিন স্থগিত করে রাখা হয়েছে। আমি দলের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। এছাড়াও চট্টগ্রামে ৫৩ জন এবং কুলাউড়ায় ৩৯ বিএনপি নেতাকর্মীর জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর নিন্দা জানান রিজভী।

এ সময় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহম্মেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ