ঢাকা, বুধবার 11 April 2018, ২৮ চৈত্র ১৪২৪, ২৩ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রথম বারের মত চট্টগ্রাম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ চাকরি মেলা অনুষ্ঠিত

চাকরি মেলায় নির্বাচিত প্রার্থীর হাতে নিয়োগপত্র তুলে দিচ্ছেন প্রধান অতিথি সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার ও চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমসহ অন্যরা

চট্টগ্রাম ব্যুরো : দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি, বাংলাদেশ বিজনেস এন্ড ডিজাবিলিটি নেটওয়ার্ক (বিবিডিএন), ব্র্যাক এবং ইপসা’র যৌথ আয়োজনে ৭ এপ্রিল সকালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য চাকরি মেলা আয়োজন করা হয়। এ মেলার উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ ইকবাল বাহার, চট্টগ্রাম চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম’র সভাপতিত্বে মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার হিসেবে বাংলাদেশ এমপ্লয়ার্স ফেডারেশন (বিইএফ)’র সভাপতি কামরান টি. রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে টিভিইটি এন্ড স্কিলস ডেভেলাপমেন্ট স্পেশালিস্ট অব আইএলও লিগা লাওং ডুমাওয়াং ও ন্যাশনাল স্কিলস ডেভেলাপমেন্ট কাউন্সিল’র এক্সিকিউটিভ কমিটির কো-চেয়ারম্যান, তুর্কির অনারারী কনসাল সালাহ্উদ্দীন কাসেম খান উপস্থিত ছিলেন। এতে আমন্ত্রিত অতিথিদের পাশাপাশি আরো বক্তব্য রাখেন পিএইচপি’র চেয়ারম্যান সুফী মোঃ মিজানুর রহমান, বিবিডিএন এক্সিকিউটিভ কমিটির কো-চেয়ারম্যান মুর্তজা রাফি খান, আইএলও বি-সেপ প্রজেক্ট’র ডিজাবিলিটি কন্সালটেন্ট আলবার্ট মোল্লা, প্রতিবন্ধী কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে গঠিত যৌথ কমিটির সদস্য সালাহ্উদ্দিন ইউসুফ ও মিনহাজ চৌধুরী, ইপসা’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার ভাস্কর ভট্টাচার্য্য, ব্র্যাকের স্কিলড ডেভেলাপমেন্ট প্রোগ্রাম’র প্রধান আহমেদ তানভীর আনাম এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের প্রতিনিধি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চেম্বার পরিচালকবৃন্দ এ. কে. এম. আক্তার হোসেন, মোঃ অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন) ও অঞ্জন শেখর দাশসহ বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিভিন্ন এনজিও সংস্থা এবং চট্টগ্রামস্থ কর্পোরেট হাউসের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ কমিশনার মোঃ ইকবাল বাহার শারীরিক প্রতিবন্ধীদেরকে সম্পূর্ণ অক্ষম না বলে বিশেষ ক্ষেত্রে বিশেষভাবে সক্ষম বলে মন্তব্য করেন। তিনি ১১ ধরণের শারীরিক প্রতিবন্ধী আছে উল্লেখ করে ব্যক্তিভেদে তাদের নির্দিষ্ট প্রতিবন্ধকতাকে পাশ কাটিয়ে অন্যান্য সক্ষমতাকে বৃদ্ধি ও দক্ষ করে গড়ে তোলার উপর গুরুত্বারোপ করেন। সিএমপি কমিশনার শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য আয়োজিত চাকরি মেলার প্রশংসা করেন এবং এ জাতীয় আয়োজন অন্যান্যদেরকে শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধীদেরকে স্বাভাবিক কার্যপ্রক্রিয়ায় সংশ্লিষ্ট করতে উদ্বুদ্ধ করবে যা দেশের জিডিপি ঘাটতি পূরণে অত্যন্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। 

 স্বাগতঃ বক্তব্যে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-চিটাগাং চেম্বার সর্বদাই এ জাতীয় উদ্যোগে অবদান রেখে আসছে। এ আয়োজনের পূর্বেও গত ৬ মাসে প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান তৈরীর লক্ষ্যে চেম্বারে ২টি সেমিনার আয়োজনসহ ১টি যৌথ কমিটি গঠন করা হয়েছে। কোন প্রকার ভেদাভেদ না করে সকলকে স্বাভাবিকভাবে কর্মক্ষেত্রে নিয়োগ না করলে ২০৩০ সালে এসডিজি লক্ষ্যপূরণ সম্ভব না, পাশাপাশি এ চাকরি মেলা আয়োজন এসডিজি লক্ষ্যপূরণের পথে চেম্বারের সহায়ক মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ বলে তিনি মন্তব্য করেন। এছাড়া মাহবুবুল আলম প্রতিবন্ধী কর্মসংস্থান বৃদ্ধির লক্ষ্যে এগিয়ে আসার জন্য কর্পোরেট হাউসগুলোর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

 বিশেষ অতিথি ন্যাশনাল স্কিলস ডেভেলাপমেন্ট কাউন্সিল’র এক্সিকিউটিভ কমিটির কো-চেয়ারম্যান সালাহ্উদ্দীন কাসেম খান বলেন-দেশের প্রায় ১০% মানুষ কোন না কোনভাবে শারীরিক প্রতিবন্ধী। এদেরকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে সম্মিলিত প্রয়াস বিশেষ করে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশীপ ভিত্তিতে কাজ করা জরুরী। আজ যারা এ মেলাতে চাকরি খোঁজে এসেছে অদূর ভবিষ্যতে একদিন তারাই সাফল্যের শেখরে পৌঁছাতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

উল্লেখ্য, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে প্রতিবন্ধীদের আয়োজিত চাকরি মেলায় প্রায় ১৭০ জন চাকরি প্রার্থী মেলায়  অংশগ্রহণকারী ১৭টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির কাছে মৌখিক সাক্ষাতকার প্রদান ও প্রয়োজনীয় জীবন-বৃত্তান্ত দাখিল করেন। 

অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে কেএসআরএম, ক্লিফটন গ্রুপ, লুব-রেফ, ম্যাফ সুজ, আরএসবি ইন্ডাস্ট্রিয়াল, চিটাগাং গ্রামার স্কুল, সাংকো অপটিকস্ (সিইপিজেড)’র পক্ষ থেকে প্রধান অতিথির মাধ্যমে ১জন করে চাকরি প্রার্থীকে নিয়োগপত্র প্রদান করা হয়। এছাড়া উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানসমূহের পাশাপাশি আরো কিছু প্রতিষ্ঠানে চাকরি মেলার অংশ হিসেবে মোট ৪০জনকে নিয়োগ প্রদান করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ