ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 April 2018, ২৯ চৈত্র ১৪২৪, ২৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ফ্রান্স থেকে অস্ত্র কিনতে ২০০০ কোটি ডলারের চুক্তি সৌদির

যুবরাজ সালমান ও ইমানুয়েল ম্যাক্রো

১১ এপ্রিল, আল আরাবিয়া : ফ্রান্স থেকে অস্ত্র কেনার জন্য প্রায় ২০০০ কোটি ডলারের আরেকটি চুক্তি সই করেছেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান। প্যারিসে তিন দিনের সফরের শেষ দিনে তিনি এ চুক্তি করেন।

 সৌদি সরকার পরিচালিত আল-আরাবিয়া টিভি চ্যানেল গত মঙ্গলবার জানিয়েছে, অর্থনীতির অনেক কিছুই এ চুক্তির আওতায় আসবে। তবে এটা চূড়ান্ত চুক্তি নাকি সমঝোতা স্মারক তা পরিষ্কার করে নি। এ ধরনের একের পর পর এক অস্ত্র চুক্তির কারণে সৌদি আরব কার্যত অস্ত্র গুদামে পরিণত হচ্ছে। এর আগে বিভিন্ন খবরে বলা হচ্ছিল- প্রায় এক হাজার কোটি ডলারের তেল সংক্রান্ত চুক্তি করবেন বিন সালমান। এতে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর সঙ্গে ফ্রান্সের টোটাল, টেকনিপ ও সুয়েজের মতো বড় কোম্পানির সহযোগিতা বাড়বে।

তবে অন্য কয়েকটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল- বিন সালমান অস্ত্র কেনার জন্য ফ্রান্স সফর করছেন। এ চুক্তির আওতায় ফ্রান্স থেকে সৌদি আরব সিজার আর্টিলারি কামান ও যুদ্ধজাহাজ কেনার চুক্তি করবেন। আগে থেকেই ফ্রান্স হতে কেনা সিজার আর্টিলারি গান, স্নাইপার রাইফেল, ট্যাংক ও সাঁজোয়া যান এবং যুদ্ধজাহাজ নিয়ে সৌদি আরব ইয়েমেনে হামলা চালাচ্ছে।

সম্প্রতি, আমেরিকা ও ব্রিটেনের সঙ্গে অস্ত্র কেনার জন্য বিশাল চুক্তি করেছে সৌদি আরব। এসব চুক্তির আওতায় রিয়াদ সরকার বহু যুদ্ধবিমান, যুদ্ধজাহাজ, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও প্রচলিত অস্ত্র পাবে।

সৌদি আরব যখন ইয়েমেনে তিন বছর ধরে সামরিক আগ্রাসন চালাচ্ছে তখন মানবাধিকারের দাবিদার পশ্চিমা সরকারগুলো সৌদি আরবের সঙ্গে একের পর এক অস্ত্র বিক্রির চুক্তি করে চলেছে। সামরিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, অস্ত্র বিক্রির জন্য মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা দেশগুলো ইয়েমেন যুদ্ধ জিইয়ে রেখেছে এবং সৌদি আরবকে পেছন থেকে মদদ দিচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ