ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 April 2018, ২৯ চৈত্র ১৪২৪, ২৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মাঠ সরগরম হয়ে উঠছে

সিংড়া : যারা ইতিমধ্যে উপজেলাব্যাপী নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন

সিংড়া (নাটোর) সংবাদদাতা: নাটোর-৩ সিংড়া সংসদীয় আসন। চলনবিল সমৃদ্ধ নাটোরের বৃহৎ উপজেলা এটি। লোকসংখা প্রায় ৫ লাখ। ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৭৬ হাজার। এর মধ্যে নারী ভোটার সংখ্যা বেশি। এ আসনে উভয় জোটের প্রায় দেড় ডজন প্রার্থী রয়েছে, যারা ইতিমধ্যে উপজেলা ব্যাপী নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন।
বিএনপি-জামায়াতের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এ আসনটি দীর্ঘ ৩৭ বছর আওয়ামীলীগের বেদখলে ছিলো। ১৯৭৩ সালের পর প্রথমবারের মতো নবম সংসদ নির্বাচনে বর্তমান এমপি জুনাইদ আহমেদ পলক বিজয়ের মাধ্যমে আসনটি বিএনপি জোটের হাতছাড়া হয়। এ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আইসিটি প্রতিমন্ত্রী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. জুনাইদ আহমেদ পলক।
জুনাইদ আহমেদ পলক ছাড়াও এখানে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চাইতে পারেন সিংড়া পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক ভিপি শফিকুল ইসলাম শফিক।
এ আসনে বিএনপির প্রার্থী তালিকায় রয়েছে প্রায় ১ডজন। সবাই ছুটছেন হাইকমান্ড এর কাছে। নির্বাচনে সবাই দলীয় মনোনয়নে আশাবাদী। তিনবারের সাবেক সাংসদ, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অধ্যাপক কাজী গোলাম মোর্শেদ এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইবেন।
উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডঃ মজিবর রহমান মন্টু এ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী।
এছাড়া এ আসনে মনোনয়ন চাইবেন সাবেক ছাত্রনেতা, সিংড়া পৌর বিএনপির সভাপতি দাউদার মাহমুদ। তিনি উপজেলা ২০দলীয় জোটের সদস্য সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।
উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক ভিপি শামীম হোসেনও এ আসনের প্রার্থী।
এ আসনে উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কাফি মনোনয়ন প্রত্যাশী।
বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইবেন নাটোর জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ফরহাদ আলী দেওয়ান শাহীন।
এ আসনে মনোনয়ন চাইবেন জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম দলের কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম ইউসুফ আলী।
এছাড়াও এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইবেন সিংড়া পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সিংড়া দমদমা পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আনোয়ারুল ইসলাম আনু ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ডা: নজরুল ইসলাম। 
এ আসনে ১৯৯১ সালে আবু বক্কর শেরকোলী জামায়াতের এম.পি নির্বাচিত হয়। তিনি মারা যাওয়ার পর উপ-নির্বাচনে এম.পি হয় বিএনপির কাজী গোলাম মোর্শেদ। এ আসনে জামায়াতের প্রার্থী জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর, সাবেক ছাত্রনেতা অধ্যাপক বেলাল-উজ-জামান।
জাতীয় পার্টি থেকে মহাজোটের মনোনয়ন চাইবেন উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি প্রকৌশলী আনিসুর রহমান ও ওয়ার্কাস পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজান।
ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী দলের উপজেলা শাখার সেক্রেটারী শাহ্ মোস্তফা ওয়ালিউল্লাহ সেলিম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ