ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 April 2018, ২৯ চৈত্র ১৪২৪, ২৪ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জৈন্তাপুর সারিঘাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

জৈন্তাপুর সংবাদদাতা: সিলেটের সারী বালু মহাল জৈন্তাপুর ও গোয়াইনঘাট উপজেলার সারীঘাট নামক স্থানে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।
সম্প্রতি জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মঈনুল হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত  এ অভিযান চলে। এ সময় অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে মোবাইল কোট পরিচালনা করে  ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।  এবং অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন বন্ধের নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মঈনুল হোসেন চৌধুরী। উল্লেখ্য যে ইজারাদারদরে মেয়াদ শেষে হলেও সিলেটের  জৈন্তাপুর উপজেলার সারী নদী থেকে বন্ধ হচ্ছে না অবধৈভাবে বালু উত্তোলন।
প্রতিদিন হাজার হাজার সিএফটি বালু উত্তোলনের মহোৎসবে মেতেছিলো স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ী।
স্থানীয় ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে সারী নদীর বালু মহাল নিয়ন্ত্রণে রেখে প্রতিদিন কয়েক হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে কিছু অসাধূ বালু ব্যবসায়ী।
ফলে বিপুল অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল সরকার।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী ইাজারাদারদের  মেয়াদ শষে হওয়ার পর সারী বালু মহাল থেকে সরকারী রয়েলটির নামে অবধৈভাবে চাঁদা উত্তোলন করে আসচে এমন সংবাদ পেয়ে সারী নদীর বালু মহালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৩০ হাজার সিফটি বালু জব্দ করেন। পরে জব্দকৃত বালু নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে দেওয়া হয়, ৩০ মার্চের মধ্যে বালু সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন তিনি।
কিন্তু এ চক্রটি প্রশাসনের কথা না শোনে তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখে।
এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মঈনুল হোসেন চৌধুরী বলেন, নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ অমান্য করে বালু ব্যবসায়ীরা ১ এপ্রিল রোববার থেকে পুনরায় অবধৈভাবে বালু উত্তোলন  শুরু করলে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে মোবাইল কোট পরিচালনা করা হয় এবং জব্দকৃত বালু নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে সরকারী কোষাগারে টাকা জমা করা হয় এবং ৩ দিনের মধ্যে বালু সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ