ঢাকা, মঙ্গলবার 17 April 2018, ৪ বৈশাখ ১৪২৫, ২৯ রজব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মোবাইল ইন্টারনেটে কর অব্যাহতি চেয়েছে অ্যামটব

স্টাফ রিপোর্টার : মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর আরোপিত ভ্যাট ও অন্যান্য ট্যাক্স প্রত্যাহারসহ ১০টি দাবি জানিয়েছে মোবাইল ফোন অপারেটরদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশ (অ্যামটব)।
গতকাল এনবিআরের সম্মেলন কক্ষে চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে প্রাক-বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে এ প্রস্তাবনা দেন অ্যামটব। এ সময় এনবিআর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনায় মোবাইল অপারেটরদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।
সংগঠনের মহাসচিব টিআইএম নুরুল কবির বলেন, বর্তমানে ইন্টারনেটের ওপর ২১.৭৫ শতাংশ হারে ভ্যাট, এসডি ও সারচার্জ প্রযোজ্য রয়েছে। আগামী বাজেটে এ কর অব্যাহতির দাবি জানাচ্ছি। ইন্টারনেট মোডেমের ওপর আমদানি পর্যায়ে ৪ শতাংশ ও ক্রেতার কাছে ৪ শতাংশ হারে ভ্যাট আদায় করা হয়। যা সম্পূর্ণরূপে মওকুফের আবেদন করছি।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ভ্যাট ও অন্যান্য কর মওকুফের প্রয়োজন। ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর ভ্যাট তুলে দিলে সাধারণ মানুষের কাছে সহজলভ্য হবে। এতে অপারেটরদের আয় বৃদ্ধি এবং তথ্য প্রযুক্তির প্রসার ঘটবে। শুল্ক কমে গেলে মোবাইল অপারেটররা প্রত্যন্ত অঞ্চলে দেশব্যাপী ব্যবসা সম্প্রসারণে সক্ষম হবে।
বতর্মানে সব মোবাইল অপারেটরদের প্রতিটি সিম বা রিম বিক্রির জন্য ৩৬ দশমিক ৬৫ টাকা ভ্যাট এবং ৬৩ দশমিক ৩৫ টাকা সম্পূরক শুল্ক দিতে হয় যা সম্মিলিতভাবে সিমট্যাক্স (১০০ টাকা) নামে পরিচিত। বাইরে সিম রিপ্লেসমেন্ট করতে হলে ১০০ টাকা ব্যয় করতে হয় গ্রাহককে।
মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, মোবাইল ইন্টারনেটে কর অব্যাহতির বিষয় নিয়ে দেশে বিদ্যমান অন্যান্য ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। তবে এ বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবো।
বিটিআরসির তথ্য মতে, দেশে মোবাইল ফোন নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৯৫ শতাংশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ