ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 July 2018, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সর্বসাধারণের মত প্রকাশের মাধ্যম ব্লগিং: লরেন

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: একটি দেশের সাধারণ জনগোষ্ঠীর মত প্রকাশের ওপর গুরুত্বারোপ করে ব্লগার লরেন কানা চ্যান বলেন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, যাদের মত প্রকাশের তেমন একটা সুযোগ হয় না, সেসব মানুষের মত প্রকাশের শক্তিশালী মাধ্যম হচ্ছে ব্লগ।

ইউরোপীয় কমিশনের হয়ে কাজ করা এই ব্লগার তিন সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ সফরে আসেন। সফর শেষে ঢাকা ত্যাগের আগে ইউএনবিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, 'একজন মানুষের মতামত অন্য মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার খুব সহজ উপায় হচ্ছে ব্লগিং। মানুষের জীবনের কোনো গল্পের আবেগপ্রবণ দিক ব্লগিংয়ের মাধ্যমে তুলে ধরা যায়।'

বাংলাদেশের কয়েকটি জেলা ভ্রমণ করে ইইউ'র উন্নয়ন প্রকল্পগুলো পরিদর্শন করা লরেন ব্যক্তিগতভাবে মনে করেন, মানুষ কি করছে এবং কেন করছে তা তাদের মনে করিয়ে দেয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ইইউ সমর্থিত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শনের জন্য নির্বাচিত চারজন ব্লগারের মধ্যে একজন লরেন। এসব প্রকল্পগুলোর আওতায় থাকা মানুষদের জীবনযাপন এবং এর মাধ্যমে তাদের জীবনে কি ধরণের পরিবর্তন আসছে বা তারা কিভাবে উপকৃত হচ্ছে সেগুলো নিয়ে বিস্তারিত লেখালেখি করাই এ ব্লগারদের মূল উদ্দেশ্য।

বাংলাদেশ সফরে এসে জামালপুর, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, খুলনা, ঢাকা, গাজীপুর, এবং নোয়াখালী এই সাতটি জেলা ভ্রমণ করেছেন লরেন।

একজন ব্লগার ও লেখক হিসেবে বাক স্বাধীনতা থাকা খুব জরুরি উল্লেখ করে লরেন বলেন, 'কিন্তু যখন আপনি কোনো সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে কাজ করবেন তখন জনগণের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া এবং তাদের মনের কথা পড়তে পারাটাও গুরুত্বপূর্ণ।'

'যেসব সাধারণ মানুষ তাদের মুক্ত চিন্তা চেতনা প্রকাশ করতে চায় তাদের জন্য যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে, যাতে তাদের অধিকার নষ্ট না হয়,' বলেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে লরেন বলেন, 'এদেশের ভূমি অধিকারের বিষয়টি আমাকে অবাক করেছে। জামালপুরসহ সারাদেশে ভূমি অধিকার একটি সমস্যাজনিত বিষয়। বৃহত্তর জনসংখ্যার কারণে অনেক এলাকায়ই শিক্ষা, স্যানিটেশন এবং লিঙ্গ বৈষম্য সৃষ্টি হচ্ছে।'

লরেন তার সংক্ষিপ্ত সফরে উপলব্ধি করেছেন যে, এদেশের নারীদের অবস্থার উন্নতি হচ্ছে, যদিও কিছু বাল্যবিবাহ এবং পারিবারিক নির্যাতনের ব্যাপারে জানতে পেরেছেন তিনি।

'এদেশের নারীরা এখন স্বাবলম্বী হওয়ার তাগিদে কাজের সন্ধান করে, প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত হয় এবং নিজেদের বিকশিত করার নানা সম্ভাবনার পথ খুঁজে বের করছে। বিশেষ করে, অল্পবয়সী অনেক মেয়ের মধ্যেই এখন নেতৃত্ব দেয়ার মতো দৃঢ় প্রত্যয় আছে, যা প্রশংসনীয়,' বলেন তিনি।

বাংলাদেশি খাবারের প্রশংসা করে লরেন বলেন, তার অনেক বন্ধুই আসলে বাংলাদেশ সম্পর্কে অবগত নয়। বাংলাদেশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ অনেক দর্শনীয় স্থান থাকলেও বেশিরভাগ মানুষেরই এ ব্যাপারে তেমন ধারণা নেই।

বিশ্বের অন্যান্য সমস্যা কবলিত দেশের মতো বাংলাদেশের মানুষও নানা প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে লড়াই করে বেঁচে আছে উল্লেখ করে সহানুভূতি প্রকাশ করেন এ ব্লগার।

লরেন বলেন, তিনি দেখেছেন সারা বিশ্বে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা অবহেলার শিকার হয়। সে দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থা অনেকটা ভালো। প্রতিবন্ধীদের সাধারণ শিক্ষার অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে, যা প্রশংসনীয়।

বাংলাদেশ সফরের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে লরেন জানান, প্রত্যেক ঘণ্টায় ঘণ্টায় এই দেশ সম্পর্কে তার ধারণা পরিবর্তন হয়েছে।

সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলার জন্য বাংলা ভাষা শেখার চেষ্টা করেছেন লরেন। 'আমি যেই প্রকল্প পরিদর্শনে এসেছিলাম তা আমাকে খুব স্পর্শ করে গেছে। এদেশের মানুষ একটা ভালো জীবন যাপনের উদ্দেশে কিভাবে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে এবং দিন রাত কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে তা সত্যিই অনুপ্রাণিত করার মতো।

সূত্র: ইউএনবি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ