ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রৌপ্য জিতেও আক্ষেপ বাকীর

স্পোর্টস রিপোর্টার : কমনওয়েলথ গেমস শেষে বিজয়ীর বেশে দেশে ফিরেছে একমাত্র পদক জয়ী বাংলাদেশ শ্যুটিং দল। সোমবার রাতে  বিমানবন্দরে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয় শ্যুটারদের। আব্দুল্লাহ হেল বাকী এবং শাকিল আহমেদের হাত ধরেই দুটি রৌপ্য এসেছে বাংলাদেশের। কমনওয়েলথ গেমসের আত্মবিশ্বাস নিয়ে এসএ গেমসে স্বর্ণ জয়ের স্বপ্ন এখন লাল সবুজের শ্যুটারদের। সামনে শ্যুটারদের মান উন্নয়নে প্রশিক্ষণের আশ্বাস দিয়েছে ফেডারেশন এবং বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের। অকল্যান্ড থেকে ম্যানচেস্টার হয়ে গ্লাসগো। সর্বশেষ গোল্ড কোস্ট কমনওয়েলথ গেমস । সবগুলো আন্তর্জাতিক আসরে পদকের প্রত্যাশা সব সব সময়ই থাকে শ্যুটিং ইভেন্ট ঘিরে। এবারও  কমনওয়েলথ গেমসে দল যাওয়ার আগে বিওএ থেকে বলা হয়েছিল, তাদের প্রত্যাশা শুটিংকে ঘিরে।  সেই প্রত্যাশা আর প্রাপ্তিকে আরো একবার পূর্ণতা দিয়েছেন আব্দুল্লাহ হেল বাকী এবং শাকিল আহমেদ। সঠিক পরিচর্যা আর উন্নত প্রশিক্ষণ পেলে একদিন অলিম্পিকেও পদক জেতার স্বপ্ন সত্যি হবে বাংলাদেশের জন্য। সে স্বপ্ন হয়তো পূরণ করবেন শাকিল-বাকী-শোভনরাই। কমনওয়েলথ মিশন শেষে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ শুটিং দল। বড় মঞ্চে বড় অর্জন। তাই সংবর্ধনায় নেই কোন কার্পণ্য। সিক্ত হয়েছেন ফুলেল শুভেচ্ছায়। বাংলাদেশের হয়ে বৈশ্বিক মঞ্চে পদক জয়ের অনুভূতি অসাধারণ। স্বর্ণের কাছে গিয়েও রৌপ্য নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে আব্দুল্লাহ হেল বাকীকে। তাই কিছুটা আক্ষেপ তাঁর।

তিনি বলেন, আমার হাতেই গেমটা ছিলো। যদি ১০.১ ও হতো, তাহলেও গেমটা আমার হাতেই থাকতো। আক্ষেপের কারণে শেষ চার-পাঁচ দিন আমি ঘুমাতেই পারিনি ঠিকমতো। এই ভুলটা যেন পরের গেমসে না হয়। এদিকে,  প্রথমবার কমনওয়েলথে ৫০ মিটার এয়ার পিস্তলে দেশের হয়ে রৌপ্য জেতা শাকিল এখন স্বপ্ন দেখেন বহুদূর যাওয়ার। তিনি বলেন, আমাদের যে বিদেশী কোচ আছে, তারা হাই লেভেলের কোচ। এখন আমরা যে পর্যায়ে এসেছি, মনে হচ্ছে যে আমরা একটা আদর্শ অবস্থানে এসেছি। বরাবরই কমনওয়েলথসহ বড় মঞ্চে সামর্থ্যের প্রমাণ রেখে যাচ্ছেন দেশের শ্যুটাররা। তাই তাদের নিয়ে ফেডারেশনের পাশাপাশি পরিকল্পনার কথা জানালো বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন। বাংলাদেশ শুটিং ফেডারেশনের মহাসচিব ইন্তেখাবুল হামিদ অপু বলেন, ওদের মোটিভেশনাল সাপোর্টটাই দরকার। ওরা জানে কীভাবে শুটিং করতে হয়। ওরা প্র্যাকটিস করেছে, কোচ যথেষ্ঠ পরিমাণে শ্রম দিয়েছে।বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি বশির আল মামুন, আমাদের যতোটুকু সামর্থ আছে, সবটুকু দিয়েই আমরা তাদের পাশে দাঁড়াবো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ