ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বড় মসজিদ ভেঙ্গে ফেলায় খেলাফত মজলিসের প্রতিবাদ

মজলুম রোহিঙ্গাদের ক্যাম্প কক্সবাজারের কুতুপালং মধুরছড়ার সবচেয়ে বড় মসজিদ শায়খুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক রহ. মসজিদ ভেঙ্গে ফেলার প্রতিবাদ সমাবেশে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সিনিয়র নায়েবে আমীর মাওলানা ইসমাঈল নূরপুরী বলেছেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের ঈমান আকিদা রক্ষার্থে মসজিদ ও মাদরাসা স্থাপন করা হয়েছে। মসজিদ ভেঙ্গে মুসলমানদের অন্তরে আঘাত দেয়া হয়েছে। অবিলম্বে মসজিদ পুন:স্থাপন করতে হবে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সবচেয়ে বড় মসজিদ ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে কার স্বার্থে দেশের মানুষ জানতে চায়?। দলের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন, এদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জান মাল হেফাজত করা যেমন আমাদের দায়িত্ব ঠিক একইভাবে তাদের ঈমান আকিদা  হেফাজতের দায়িত্বও বাংলাদেশ সরকার ও ষোল কোটি মুসলিম জনতার। অথচ অত্যন্ত দু:খের সঙ্গে বলতে হয় সরকার রোহিঙ্গাদের জন্য প্রাপ্ত  বিদেশী অনুদান দিয়ে রোহিঙ্গাদের থাকা খাওয়ার প্রয়োজন পূরণ করলেও তাদের ঈমান আকিদা রক্ষায় কোনো গুরুত্ব নেই। গুরুত্ব দূরে থাক এ দেশের আলেম উলামা ও সাধারণ জনতার অর্থে রোহিঙ্গাদের জন্য নির্মিত মসজিদ ও মাদরাসা পরিচালনায় সরকার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইতোমধ্যে সবচেয়ে বড় মসজিদটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। আর যদি একটি মসজিদ ও মাদরাসার গায়ে আগাত হানা হয় তাহলে সারা দেশে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে পুরানা পল্টনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে শাখা সভাপতি মাওলানা এনামুল হক মূসার সভাপতিত্বে ও সহ-সাধারণ সম্পাদক মুফতি আব্দুল মুমিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ন-মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, অফিস ও বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশিদ ভূইয়া, নরসিংদী জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইলিয়াছ শেরপুরী, যুব মজলিসের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা ফজলুর রহমান, মাওলানা জহিরুল ইসলাম, মাওলানা হাশমতুল্লাহ ফরিদী  প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ