ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মাধবদীতে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে হাসপাতালগুলোতে হয়রানির অভিযোগ

মাধবদী (নরসিংদী) সংবাদদাতা : মাধবদীর বিস্তীর্ণ এলাকায় বেড়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। মাধবদী পৌর এলাকা ছাড়াও আশপাশের কয়েকটি ইউনিয়নে গত দু’সাপ্তাহে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে।
দিনে গরম রাতে হালকা ঠান্ডা মাঝে মাঝে বৃষ্টি জনিত বৈরী আবহাওয়ায় এ রোগের প্রকোপ বেড়েছে বলে মন্তব্য বিশেষজ্ঞদের। মাধবদী, পাচঁদোনা, শেখেরচর সহ আশপাশের ১১টি প্রাইভেট ক্লিনিক ও সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে প্রায়  প্রতিটিতেই ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী রয়েছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসকরা জানিয়েছেন প্রতিদিনই সকাল থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত ডায়রিয়া রোগী আসছেন এবং চিকিৎসা নিচ্ছেন। এসব হাসপাতাল ও চিকিৎসা কেন্দ্রের হিসেব মতে গত ৭ দিনে ৩হাজার ৭শ’ ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী তাদের এখানে চিকিৎসা নিয়েছেন। এবং প্রতিদিনই নতুন আক্রান্ত রোগী আসছেন। এসব রোগীর অধিকাংশই মহিলা এবং বৃদ্ধ/বৃদ্ধা বলে জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন চিকিৎসক। সরকারী স্বাস্থ্য সেবা ক্লিনিক গুলির অধিকাংশতেই খাবার স্যালাইন পাওয়া যাচ্ছেনা বলে অভিযোগ করেছেন অনেক রোগী ও তাদের আত্মীয়স্বজনরা।
 তারা বলছেন রাতে রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলেও চিকিৎসকদের কল করে বাসায় নেয়া যায়না এবং হাসপাতালে নিয়ে এলেও সহকারী আর নার্স ছাড়া কোন চিকিৎসক পাওয়া যায়না। এতে করে বেশ কিছু রোগী চিকিৎসার অভাবে মৃত্যু বরণ করেছেন। এ ব্যাপারে তিনটি প্রাইভেট হাসপাতালের কয়েকজন চিকিৎসকের সাথে কথা বলার সময় তারা জানান আমাদের হাসপাতালে আনতে বিলম্ব হলে চিকিৎসা দেয়ার পূর্বেই কেউ হয়তো মারা যেতে পারে আর বেশী জটিল হলে অনেক সময় স্যালাইন পুশ করা সম্ভব না হলে আমাদের আর কিছু করা সম্ভব হয়না।
বেশ কিছু রোগীর আত্মীয় স্বজনের অভিযোগ রোগী নিয়ে হাসপাতালে এলে বেডে নেয়ার আগেই ওষুধ ভর্তি ডাক্তারের ফি পরিশোধ না করলে চিকিৎসা হয়না এবং হাসপাতালের ষ্টাফ বয় সবাইকেই আলাদা খরচ না দিলে কেউ কাছে আসেনা। এ হচ্ছে মাধবদীর স্বাস্থ্য সেবার মান ও হাল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ