ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সোনারগাঁয়ে একই রাতে হত্যা, ডাকাতি ও মাদক পাচারের ঘটনা

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি।
একই রাতে উপজেলার ছনপাড়া এলাকায় গত সোমবার রাতে এক মাদক বিক্রেতাকে  কুপিয়ে হত্যা, কান্দারগাঁও এলাকায় ডাকাত হানা দিয়ে  ৬ ভরি স্বর্ণ, ২টি মুঠোফোন ও নগদ টাকা সহ ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে এবং ঢকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা বাস স্ট্যান্ড এলাকা থেকে  ১৪ হাজার পিছ ইয়াবা উদ্ধার করেছে সোনারগাঁও থানার পুলিশ। 
বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের ছনপাড়া এলাকায় গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে সানাউল্লাহ (৪২) নামের এক মুদি দোকানিকে ধারালো চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় সানাউল্লাহকে বাঁচাতে চেষ্টা করলে তার বন্ধু ছমিরউদ্দিনকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।
নিহতের বাবা হাজি মিছির আলী জানান, গত সোমবার রাতে আমার ছেলে সানাউল্লাহ বারদি এলাকা থেকে বাড়ি ফেরা পথে পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী আল আমিন, আমির হোসেন, রুহুল আমিন ও যুবলীগ নেতা নবী হোসেনের নেতৃত্বে ২২-২৬জন সন্ত্রাসী ছনপাড়া রাস্তায় ব্রিজের সামনে গতিরোধ করে।
ধারালো চাপাতি দিয়ে সানাউল্লাহ মাথায় এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় সানাউল্লাহ ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রসীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
পরে মুমূর্ষু অবস্থায় সানাউল্লাহকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
অপরদিকে একই রাতে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পূর্ব কান্দারগাঁও গ্রামের সোলায়মান সরকারের বাড়িতে সম্প্রতি গভীর রাতে ৮/১০ জনের একদল ডাকাত হানা দেয়।
এ সময় ডাকাতরা সোলায়মান সরকারের পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ঘরের আলমারী থেকে ৬ ভরি স্বর্ণ, ২টি মুঠোফোন ও নগদ টাকা সহ ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।
এ সময় ডাকাতদের বাধা দিতে গেলে মামুন সরকার নামের এক জনকে পিটিয়ে আহত করে ডাকাতরা । পরে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে ডাকাতদল ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। আহতকে উদ্ধার করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
উপজেলার ঢকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা বাস স্ট্যান্ড থেকে সম্প্রতি ১৪ হাজার  পিছ  ইয়াবা উদ্ধার করেছে সোনারগাঁও থানার পুলিশ।
এ সময় কক্সবাজার জেলার রামু থানার দক্ষিন মরিপাড়া গ্রামের সাব্বির আহমেদের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী মঞ্জুর আলম (৪০), একই জেলা ও থানার ভূয়া কিলম গ্রামের মৃত হোসেনের ছেলে দিদার আলম (২২) ও মধ্য  কুনিয়া পালং গ্রামের বদিউল আলমের ছেলে আব্দুল আলম (৩৬) নামে তিন জনকে একটি পাজেরো জীপ গাড়ীসহ গ্রেফতার করা হয়।
সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোরশেদ আলম পিপিএম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে  একটি পাজেরো জীপ গাড়ীতে তল্লাশি চালিয়ে ওই তিন জনকে আনুমানিক ৪২ লাখ টাকার ১৪ হাজার পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ