ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হত্যার বিচারের দাবীতে সোচ্চার এলাকাবাসী

মাদারীপুর সংবাদদাতা: মাদারীপুরের রাজৈরে এক সন্তানের জনককে পরকীয়ার বলি হয়ে খুন  হতে হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্ত্রীর বাবার বাড়িতে ডেকে পরিকল্পিতভাবে রানা মৃধা নামের ওই ব্যক্তিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে নিহতের পরিবার দাবী করেন। ঘটনার পর স্ত্রী ও শ্বাশুড়ীকে স্থানীয়রা হাতে-নাতে ধরে পুলিশে সোর্পদ করে। তবে ঘটনার এক সপ্তাহ হতে চললেও মূল হোতা এখনো ধরা ছোয়ার বাহিরে। এতে ফুঁসে উঠেছে নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও স্থানীয়রা। অতি দ্রুত মূল হোতাকে গ্রেফতার করা না হলে বৃহৎ আন্দোলনের হুমকি স্থানীয়রাদের। আর প্রশাসন, আসামীদের গ্রেফাতারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবী পুলিশ কর্মকর্তার। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বাজিতপুর ইউনিয়নের কোদালিয়া গ্রামের আক্কাস মৃধার ছেলে রানা মৃধার সাথে পার্শ্ববর্তী সাতারিয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর খোন্দকারের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে মাফুজা খন্দকার পিপাসার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায় উভয় পরিবারের সম্মতিতে বছর দু’ বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। এ নিয়ে শশুরবাড়ী বেড়াতে গেলেই প্রায় পারিবারিক কলহ লেগেই থাকতো। গত ৬ এপ্রিল শুক্রবার রাতে রানা শশুরবাড়ি বেড়াতে গেলে আবারো তাদের মধ্যে কলহ হয়। পরে শনিবার সকাল ১০টার দিকে রানার স্ত্রী তার শ্বশুরকে ফোন দিয়ে রানা ফাঁস দিয়ে মারা গেছে বলে জানান। পরে স্থানীয় জনতা স্ত্রী ও তার মাকে হাতে-নাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। নিহত রানার পিতা আক্কাস মৃধা জানান, ‘আমার ছেলেকে ডেকে নিয়ে রানার স্ত্রী মাফুজা খন্দকার পিপাসা, তার বাবা জাহাঙ্গীর খোন্দকার ও তার শ্বাশুড়ি জড়িত। ওরা পরিকল্পিতভাবে আমার সন্তানকে হত্যা করেছে। আমি এই হত্যার বিচার চাই।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ