ঢাকা, বুধবার 18 April 2018, ৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গা সদর সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামে স্ত্রীর ঝাঁটার বাড়িতে মারা গেছে আব্দুল হাকিম (৬৫) নামে এক ব্যাক্তি।  সম্প্রতি এ ঘটনাটি ঘটে। সদর থানা পুলিশ বেলা সাড়ে ১০টার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে এবং স্ত্রী ছাহেরা খাতুনকে আটক করে থানায় নিয়েছে। পদ্মবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস জানান, আব্দুল হাকিম বিগত দুইবছর ধরে প্যারালাইজড হয়ে শয্যাগত। আজ বৃহস্পতিবার সকালে ভাত খাওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্বামী আব্দুল হাকিম রাগ করে স্ত্রীকে লাঠি দিয়ে মারে। এরপর স্ত্রীও তাকে ঝাঁটা দিয়ে মারলে সে মাথায় আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। সরোজগঞ্জ ফাঁড়ির উপ পুলিশ পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান জানান, পারিবারিক কলহের কারণে ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতের স্ত্রীকে আটক করে সদর থানায় নেওয়া হয়েছে । এ ব্যাপারে সদর থানায় মামলা হবে। চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার চাঁদপুর গ্রামে বালিভর্তী ট্রাক্টর উল্টে ওই ট্রাক্টরের চালক  শাকিল হোসেন (২৫) ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। সম্প্রতি  সদর উপজেলার খেঁজুরতলা  থেকে বালি নিয়ে শৈালগাড়ি গ্রামে যাবার সময় ট্রাক্টর উল্টে গেলে সে বালির নিচে পড়ে মারা যায়। নিহত শাকিল হোসেন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার কুলচারা বড়পুকুর পাড়ার মাসুদুর রহমানের ছেলে।
দাম্পত্য জীবনে শাকিল হোসেনের আকলিমা নামের এক স্ত্রী এবং সামিয়া নামে দুই বছরের একটি মেয়ে আছে।   সদর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
কচাকাটা (কুড়িগ্রাম)
গত কয়েক দিনের ব্যবধানে কুড়িগ্রামের প্রস্তাবিত কচাকাটা উপজেলায় সবদের মোড় জব্বার মেম্বারের বাড়ী সংলগ্ন স্থানে মৃত আব্দুল মমিন এর মেয়ে মাইশা খাতুন (৪) অটোর নিচে পড়ে গুরুতর আহত হলে ভুরুঙ্গামারী হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। সরজমিনে গিয়ে জানা যায় টেপারকুটি মোল্লাপাড়া গ্রামের মনছুর আলী মন্ডলের ছেলে অটো চালক আলতাফ হোসেন (৩৫) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত মাইশা খাতুনকে ধাক্কা দিলে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতাল নেয়ার পূর্বে পথিমধ্যে মারা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ